kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আগামীকাল ভোলার ৩ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন

ভোলায় কেন্দ্রগুলোতে পাঠানো হচ্ছে নির্বাচনী সামগ্রী

ভোলা প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৯ ১৮:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভোলায় কেন্দ্রগুলোতে পাঠানো হচ্ছে নির্বাচনী সামগ্রী

আগামীকাল রবিবার চতুর্থ ধাপে ভোলার দৌলতখান, তজুমদ্দিন ও লালমোহন উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ শনিবার সকাল থেকে স্ব স্ব উপজেলার নির্বাচন অফিস থেকে প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটের সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। প্রিজাইডিং অফিসারগণ কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে স্ব স্ব কেন্দ্রে ব্যালট পেপারসহ ভোট গ্রহণের অন্যান্য সামগ্রী নিয়ে গেছেন।

এদিকে নির্বাচনকে অবাদ ও সুষ্ঠু করার লক্ষে প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার ও কোস্টগার্ডসহ ৫ স্থরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এ ছাড়াও ম্যাজিস্ট্রেট স্টাকিং ফোর্স নিয়োজিত থাকবে।

অপরদিকে একমাত্র হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে তজুমদ্দিন উপজেলায়। সরেজমিনে জানা যায়, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোশারেফ হোসেন দুলালের জনপ্রিয়তা যেন নৌকা প্রতীকে মনোনীত ফজলুল হক দেওয়ানের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাস জুড়ে চলছে হামলা ভাঙচুর ও সহিংসতা। দু-পক্ষই একে অপরকে দায়ী করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তবে এখনো আতঙ্ক বিরাজ করছে সাধারণ ভোটারের মাঝে। শুক্রবার মধ্য রাতে প্রচারণা শেষ হলেও আজ শনিবার বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তেমন কোনো অপ্রিতিকর ঘটনা শোনা যায়নি।

উল্লেখ্য, ৩১ মার্চ ভোলার ৬টি উপজেলা নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও ভোলা সদর, মনপুরা ও চরফ্যাশন উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়। এ ছাড়া দৌলতখান উপজেলায় চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদেও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অনুষ্ঠিত হওয়ায় শুধু পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে নির্বাচনের সার্বিক বিষয়ে তজুমদ্দিন উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসার সৈয়দ শফিকুল হক জানান, সংসদ নির্বাচনসহ সকল সময়ই এ উপজেলায় নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হওয়ায় উপজেলা নির্বাচনকে ঘিড়ে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হযেছে। যাতে কেউই যেন ক্ষমতা প্রয়োগের মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচনে নবাধা না দিতে পারে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা