kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নিরুত্তাপ ভোট

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি   

১৮ মার্চ, ২০১৯ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নিরুত্তাপ ভোট

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত নিরুত্তাপ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলেও ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো হতাশাজনক। ভোটারদের কেউ বলছেন অজানা আশঙ্কা আবার কেউ বলছেন বিএনপি না আসায় ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যাননি। যদিও আদমদীঘি উপজেলায় কোথাও কোনো অপ্রিতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

আদমদীঘি উপজেলায় একটি পৌরসভা ও ৬টি ইউনিয়ন মিলে গঠিত। এই উপজেলায় ৫৮টি ভোট কেন্দ্রের ৪৪১টি বুথের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৫৬ হাজার ১৫৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭৭ হাজার ৬৯০ জন ও নারী ভোটার ৭৮ হাজার ৪৬৫ জন। আদমদীঘি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার কারণে দুইটি ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ৮ জন প্রার্থীর লড়াই চলছে। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী। এবার নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পর থেকেই নির্বাচনী উত্তাপ তেমন ছড়ায় নি।

সকাল থেকে বিকেল ৪টা পযর্ন্ত আদমদীঘি উপজেলার একাধিক কেন্দ্র ঘুরে ভোটারহীন ভোট লক্ষ করা যায়। ছবি তোলার মতো ভোটারদের কোনো লাইন ছিলো না। সকাল থেকেই একজন দুইজন করে ভোটার এসে ভোট দিয়েছেন। আবার কোথাও কোথাও প্রার্থীরা ভোটারদের ডেকে ডেকে কেন্দ্রে এনেছেন। জনপ্রিয় প্রার্থীদের কেন্দ্রগুলোতে তুলনামূলক বেশি ভোট পড়েছে।

ভোটারদের উপস্থিতি কম হওয়ার কারণ জানতে চাইলে সান্তাহার ইউনিয়নের ভোটার রুপালী বেগম বলেন, মানুষের মনে অজানা আতঙ্ক কাজ করছে। তাই তারা ভোট দিতে আসেননি।

আদমদীঘি সদর ইউনিয়নের ভোটার আমিনুল ইসলাম জানান, আমি এসে ছিলাম উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দিতে। কিন্তু এসে সে রকম পরিবেশ দেখলাম না। ভোটারহীন ভোট কেন্দ্র। দুই একজন এসে ভোট দিয়ে যাচ্ছেন। এ রকম ভোট দেখে হতাশ হয়েছি। তবে ভোট কেন্দ্রে কেন মানুষ আসছে না সেটা ভাবার বিষয়।

আদমদীঘি উপজেলা নির্বাচন অফিসার আয়েশা খাতুন জানায়, উপজেলা নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করা হয়েছে। কম ভোট পড়লেও কোনো অনিয়মের সাথে আমরা আপস করিনি।

এ ব্যাপারে সান্তাহার টাউন পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মুসা মিয়া বলেন, শান্তিপূর্ণ ভাবেই ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া পর্যাপ্ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। তারা সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালন করেছে তাই শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা