kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

জানা-অজানা

পালকি

[ষষ্ঠ শ্রেণির চারুপাঠ বইয়ে পালকির কথা উল্লেখ আছে]

আব্দুর রাজ্জাক   

১৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পালকি

এক স্থান থেকে অন্য স্থানে মানুষ বহন করার অন্যতম প্রাচীন মাধ্যম পালকি। এই বাহন যিনি বা যাঁরা বহন করেন, তাঁদের বাহক বা বেহারা বলা হয়। সংস্কৃত ‘পল্যঙ্ক’ বা ‘পর্যঙ্ক’ থেকে পালকি শব্দের উৎপত্তি। পালি ভাষায় এর নাম ‘পালাঙ্কো’। হিন্দি ও বাংলায় পালকি নামে পরিচিত। জানা যায়, বিখ্যাত পর্যটক ইবনে বতুতা ও জন ম্যাগনোলি ভ্রমণে পালকি ব্যবহার করতেন। সম্রাট আকবরের শাসনামলে সেনাধ্যক্ষদের যাতায়াতের মাধ্যম ছিল এটি। বাংলার বিভিন্ন অঞ্চলে বিয়েতে বর-কনের যাতায়াতের জন্য এটি ব্যবহার করা হতো। বিভিন্ন আকৃতি ও ডিজাইনের হয়ে থাকে পালকি। ছোট পালকি দুজনেই বহন করা যায়। বড় পালকি বহন করতে চার থেকে আটজন বাহকের প্রয়োজন হয়। সেগুন ও শিমুল কাঠ দিয়ে পালকি তৈরি করা হয়। বটগাছের বড় ঝুরি দিয়ে তৈরি করা হয় এর বাঁট (বাহন করার দণ্ড)। পালকি সাধারণত তিন ধরনের হয়ে থাকে—সাধারণ পালকি, আয়না পালকি ও ময়ূরপঙ্খি পালকি। সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন হলো ময়ূরপঙ্খি। এটি ময়ূরের আকৃতিতে তৈরি করা হয়। ভেতরে দুটি চেয়ার, একটি টেবিল থাকে। এ পালকির বাঁটটি বাঁকানো। বাইরের দিকে কাঠের তৈরি পাখি, পুতুল ও লতাপাতার নকশা আঁকা থাকে।  

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা