kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

জানা-অজানা

রেসকোর্স ময়দান

[পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বইয়ে ‘রেসকোর্স ময়দান’-এর কথা উল্লেখ আছে]

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রেসকোর্স ময়দান

রেসকোর্স ময়দান রাজধানী ঢাকার কেন্দ্রস্থল রমনার একটি সুপরিসর নগর উদ্যান। ঊনবিংশ শতাব্দীর পূর্ব পর্যন্ত এটি ছিল একটি জঙ্গলাকীর্ণ পরিত্যক্ত এলাকা। ১৮২৫ সালে ঢাকার ব্রিটিশ কালেক্টর মি. ডয়েস এটি পরিষ্কার করে নাম দেন রমনা গ্রিন। ১৯২১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হলে উদ্যানের গুরুত্ব বেড়ে যায়। ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ স্থানে তাঁর কালজয়ী ভাষণটি দিলে উদ্যানটি ঐতিহাসিক স্থান হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায়। এ উদ্যানে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনীর কাছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী আত্মসমর্পণ করে। একই বছর বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর জাতীয় নেতা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর নামানুসারে এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘সোহরাওয়ার্দী উদ্যান’।

বর্তমানে উদ্যানটির দক্ষিণে আছে পুরনো হাইকোর্ট ভবন, জাতীয় তিন নেতা শেরেবাংলা এ কে ফজলুল হক, খাজা নাজিমুদ্দীন ও হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর সমাধি। পশ্চিমে আছে বাংলা একাডেমি, অ্যাটমিক এনার্জি কমিশন, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র, চারুকলা ইনস্টিটিউট, বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ, পাবলিক লাইব্রেরি ও বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর। উত্তরে আছে বারডেম হাসপাতাল, ঢাকা ক্লাব ও ঢাকার টেনিস কমপ্লেক্স এবং পূর্বে সুপ্রিম কোর্ট ভবন, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন ও রমনা পার্ক।                       

মন্তব্য