kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

টিন তারকা

দলছুটের সবাইকে দাওয়াত দেওয়ার কথা ভাবছি

সবে এসএসসি দিয়েছে। এর মধ্যেই জুটেছে নায়িকা খেতাব। ২০১২ সালে ভালোবাসার রঙ ছবিতে শুরু পূজা চেরির। শতাধিক বিজ্ঞাপন করে ফেলেছে এরই মধ্যে। পোড়ামন-২, প্রেম-২, দহন ছবিতেও মুখ্য চরিত্রে সে। বৈশাখী পরিকল্পনাসহ আরো অনেক কিছু নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন গোলাম মোর্শেদ সীমান্ত

৭ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দলছুটের সবাইকে দাওয়াত দেওয়ার কথা ভাবছি

দলছুট : বৈশাখের দিন কী করবে? উপহার নিয়ে প্ল্যান?

পূজা : সেদিন আমি চিরায়ত বাঙালি সাজটা সাজতে চাই। মা-বাবার সঙ্গে মেলায় ঘুরতে যাব। আর সে রকম ভাবে কাউকে উপহার দেওয়া হয় না। নেওয়াও হয় না। বান্ধবীদের বাড়ি বেড়াতে যাওয়া হয়। সুযোগ পেলে পান্তা-ইলিশও খাওয়া হয়।

 

দলছুট : বৈশাখে নিজের হাতে কিছু রান্না করবে না?

পূজা : আমি রান্না করতে পছন্দ করি। কিন্তু এই দিনে আমার চেয়ে মায়ের রান্নাই বেশি ভালো লাগবে।

 

দলছুট : এই দিন ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি হলে কী করবে?

পূজা : কিছুক্ষণ গুনগুন করে গাইব, লেবুর পাতা করমচা, যা বৃষ্টি ঝরে যা। এর পরও না থামলে বাসায় বসেই বৈশাখী আনন্দে হৈ-হুল্লোড় শুরু করব। আর বৃষ্টিও তো কম উপভোগ্য নয়।

 

দলছুট : পহেলা বৈশাখে আমাকেসহ আর কাকে কাকে দাওয়াত দেওয়ার কথা ভাবছ?

পূজা : শুধু আপনাকে না, দলছুটের সবাইকে দাওয়াত দেওয়ার কথা ভাবছি। অবশ্য যদি বাসায় জায়গা না হয় তবে খোলা মাঠেই হবে আড্ডা।

 

দলছুট : ২০১৯ সাল কেমন যাচ্ছে? কী নিয়ে ব্যস্ত?

পূজা : খুব ভালো। মাত্র পরীক্ষা দিলাম। তবে নতুন কী করছি, এখনই বলব না। চমক থাকুক।

 

দলছুট : বিজ্ঞাপনে পূজাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না কেন?

পূজা : আপাতত বড় পর্দায় ব্যস্ত। ভালো কাজ পেলে অবশ্যই করব। যেহেতু দর্শক আমার কাছ থেকে ভালো কিছু দেখেছে। পরে যেনতেন কিছু আশা করবে না।

 

দলছুট : ধরো জাদুর কলম পেলে। যা লিখবে তা-ই হবে। কী লিখবে?

পূজা : আমার মা-বাবা যেন সব সময়ই ভালো থাকে। আজীবন বেঁচে থাকে। আর আমাদের দেশ যেন অন্য কোনো দেশের চেয়ে কোনো অংশে কম না থাকে। 

 

দলছুট : নিজের অভিনয়কে ১০-এ কত দেবে?

পূজা : ওমা! এটা আমি কেন দেব! এটা দেবে দর্শকরা। নিজেকে নম্বর দেওয়ার অধিকার আমার নেই।

 

দলছুট : প্রিয় অভিনেতা, পরিচালক?

পূজা : অনেকেরই ভালো লাগে। সুচিত্রা সেন খুব প্রিয়। আর সালমান শাহর ছবি তো এখনো দেখি। এর বাইরে যাদের সঙ্গে কাজ করেছি সবাইকে ভালো লেগেছে।

 

দলছুট : সবচেয়ে বড় গুজব কোনটা?

পূজা : সিয়ামের বিয়ে হওয়ার কারণে আমি নাকি ভেঙে পড়েছিলাম! হা হা হা...

 

দলছুট : ফেসবুক পেজ হ্যাক হয়ে গেল, কী করবে?

পূজা : শান্ত থেকে পেজটাকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করব। হ্যাক হওয়া পেজ তো আর ছুড়ে দেওয়া তীর না যে ফিরিয়ে আনা যাবে না।

 

দলছুট : বদ-অভ্যাস?

পূজা : সারাক্ষণ মোবাইল নিয়ে পড়ে থাকা।

 

দলছুট : বড় হয়ে কী হতে চাও?

পূজা : যেহেতু ছোট থেকেই ভালো অভিনেতা হওয়ার পোকা মাথায় ঢুকেছে, তাই আর কিছু ভাবছি না। তবে আমার ইচ্ছা, অসহায় ও প্রতিবন্ধীদের পাশে দাঁড়াব। এটা আমি করেই ছাড়ব।

মন্তব্য