kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

ডিএসসিসির হকারমুক্ত ফুটপাত

নির্বিঘ্নে হাঁটছে পথচারীরা

এই মুক্ত ফুটপাত চিরস্থায়ী হোক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্বিঘ্নে হাঁটছে পথচারীরা

পুরানা পল্টন এলাকার হকারমুক্ত ফুটপাতে নির্বিঘ্নে হাঁটছে পথচারীরা। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে স্বল্প দূরত্বে যাওয়ার জন্য মানুষ হাঁটাকেই প্রাধান্য দেয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) জনবহুল এলাকা থেকে হকার উচ্ছেদ হওয়ায় নির্বিঘ্নে হাঁটাচলা করতে পারছে নগরবাসী। ফুটপাতে হকার বসতে না দেওয়ায় পরিচ্ছন্নতা ফিরেছে পুরো এলাকায়। কমেছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি। মতিঝিল, গুলিস্তান, পল্টন এবং নিউ মার্কেটের মতো জনবহুল এলাকায়ও স্বাচ্ছন্দ্যে চলাফেরা করার সুযোগ পাচ্ছে নগরবাসী। সম্প্রতি ডিএসসিসির ওই সব এলাকা ঘুরে এবং পথচারীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ২১৭ কিলোমিটারের বেশি ফুটপাত রয়েছে। বিশাল দৈর্ঘ্যের এই ফুটপাতের বেশির ভাগ এলাকা ছিল হকারদের দখলে। ডিএসসিসির গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় পণ্যের পসরা সাজিয়ে দখল করে রাখা হয়েছিল ফুটপাত। ফুটপাত দখলে থাকায় সড়কের মধ্য দিয়ে চলাফেরা করতে হতো নগরবাসীকে। সিটি করপোরেশন বিভিন্ন সময়ে স্বল্প পরিসরে ফুটপাত উন্মুক্ত রাখার অভিযান চালিয়েও ব্যর্থ হচ্ছিল। হকার্স ইউনিয়ন ও ফেডারেশনের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেও কোনো ফল পাওয়া যাচ্ছিল না। কিন্তু চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে হকার উচ্ছেদের ব্যাপারে কঠোর হয় সিটি করপোরেশন। অবশেষে ঢাকা মহানগর পুলিশের সহযোগিতায় পথচারীদের ফুটপাতে হাঁটার অধিকার ফিরিয়ে দিতে পেরেছে ডিএসসিসি। ফুটপাত থেকে হকার উচ্ছেদ ও তা দখলমুক্ত রাখতে ডিএসসিসিকে সার্বিক সহযোগিতা করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ডিএসসিসির গুলিস্থান, মতিঝিল, পল্টন, নিউ মার্কেট, পোস্তগোলা, শ্যামপুর, ধানমণ্ডি, কলাবাগান, কদমতলী, কোতোয়ালি, বংশাল, খিলগাঁও, সূত্রাপুর, ওয়ারী এবং খিলক্ষেত এলাকা থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে হকারদের। এসব এলাকায় হকার বসার জন্য সভা-সমাবেশ ও প্রতিবাদ করলেও ফুটপাত পরিষ্কার রাখতে তৎপর রয়েছে সিটি করপোরেশন এবং পুলিশ। হকার না থাকায় ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে পারায় স্বস্তি ফিরেছি পথচারীদের মধ্যেও। তবে স্থায়ীভাবে ফুটপাত হকারমুক্ত রাখতে তাদের পুনর্বাসনের দাবি জানিয়েছে তারা। মতিঝিল এলাকার একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মকর্তা হাসিবুর রহমান সুমন বলেন, ‘আমাদের চাওয়া, এই মুক্ত ফুটপাত চিরস্থায়ী হোক।’

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারণ সম্পাদক ড. আদিল মোহাম্মদ খান বলেন, ‘সুস্থ নগর ব্যবস্থাপনায় ফুটপাত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দীর্ঘদিন হকারদের দখলে থাকায় নগরবাসী স্বাচ্ছন্দ্যে হাঁটতে পারত না। তবে মানবিক বিবেচনায় হকারদের জন্যও বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি।’

মন্তব্য