kalerkantho

বুধবার। ১৯ জুন ২০১৯। ৫ আষাঢ় ১৪২৬। ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

নৈশভোজেই এনডিএ ২-র রূপরেখা তৈরি!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শরিক নেতাদের উদ্দেশে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের দেওয়া নৈশভোজেই দ্বিতীয় জাতীয় গণতান্ত্রিক জোট (এনডিএ) সরকার গঠনের রূপরেখা তৈরি হয়ে গেছে। ওই বৈঠকে শরিক নেতাদের সঙ্গে অমিত শাহ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠক হয়। নৈশভোজে অংশ নেওয়া বিজেপির একাধিক সূত্র সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছে।

সূত্রের খবর জাদু সংখ্যা পেয়ে সরকার গড়ার মতো জায়গায় গেলে তিনটি মূল বিষয়কে সামনে রেখে এবার জোট বাঁধবে এই দলগুলো। এর মধ্যে আছে জাতীয় নিরাপত্তা, দেশাত্মবোধ এবং উন্নয়ন। দিল্লির অশোকা হোটেলে মঙ্গলবার ওই নৈশভোজের আয়োজন করা হয়। সেখানেই এই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

বৈঠক শেষ হওয়ার পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান এনডিএর ৩৬টি দল উপস্থিত ছিল। তিনটি দল আসতে পারেনি। কিন্তু তারা লিখিতভাবে নিজেদের সমর্থনের বিষয়টি জানিয়েছে। রাজনাথ বলেন, গত পাঁচ বছরে দেশের সরকার মানুষের নিত্যপ্রয়োজনকে মেটানোর চেষ্টা করেছে। আগামী পাঁচ বছর আমরা এই কাজেই গতি আনতে চলেছি। কী করতে চায় নতুন সরকার? তার একটা হদিস দিয়েছেন রাজনাথ। তিনি বলেছেন, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগোবে নতুন সরকার। পাশাপাশি সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে এবং সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থান নেওয়ার ক্ষেত্রে ভারত বিশ্বের অন্য দেশগুলোর সঙ্গে আরো বেশি করে সমন্বয় সাধন করবে। গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের মতো প্রাকৃতিক সমস্যা সমাধানের জন্য চেষ্টা করবে নতুন সরকার।

উত্তর প্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী জানান, ‘আমাদের সরকারের কাছে দেশের সুরক্ষা প্রথম বিষয়। গত পাঁচ বছর আমরা সেই ভাবনাকে সামনে রেখেই সরকার চালিয়েছি। সবাই বিশেষ করে অন্য দেশগুলো বুঝতে পারছে সন্ত্রাসবাদ প্রসঙ্গে ভারতের যে নমনীয় অবস্থান আগে ছিল এখন আর তা নেই। এই পরিবর্তিত চিন্তাভাবনাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজই করবে আমাদের সরকার।

গত রবিবার লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফার ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পর একাধিক বুথফেরত সমীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, এবারও নিজেদের জোরেই সরকার গড়বে এনডিএ। পশ্চিমবঙ্গের মতো কয়েকটি রাজ্যে অভাবনীয় সাফল্য পাবে বিজেপি। এই পূর্বাভাস স্বভাবতই উৎসাহী করেছে গেরুয়া শিবিরকে। সূত্র : এনডিটিভি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা