kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

অ্যাসাঞ্জকে আটকের আরজি সুইডিশ আইনজীবীদের

জিনিসপত্র যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর শুরু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিকল্পধারার সংবাদমাধ্যম উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তদন্তে আইন কর্মকর্তারা তাঁকে আটকের জন্য স্থানীয় আদালতকে অনুরোধ জানিয়েছেন। জামিন আদেশ অগ্রাহ্য করায় অ্যাসাঞ্জ বর্তমানে ইংল্যান্ডে ৫০ সপ্তাহের কারাদণ্ড ভোগ করছেন। গত মাসে তাঁকে ইংল্যান্ডে ইকুয়েডর দূতাবাস থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত সপ্তাহে সুইডেন অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তদন্ত আবার শুরু করে। ২০১০ সালে সুইডেন প্রথমবার তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিল, তবে ইংল্যান্ডে ইকুয়েডরের দূতবাসে আশ্রয় নেওয়ায় ২০১৭ সালে তাঁর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ বাতিল করা হয়েছিল। অ্যাসাঞ্জ অবশ্য এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

গতকাল সোমবার সহকারী প্রধান আইন কর্মকর্তা ইভা মারিয়া পারসন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘ধর্ষণের জন্য সন্দেহভাজন হিসেবে অ্যাসাঞ্জকে তাঁর অনুপস্থিতিতেই আটকের জন্য জেলা আদালতকে অনুরোধ করছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘যদি আদালত তাঁকে আটকের সিদ্ধান্ত নেন তাহলে অ্যাসাঞ্জকে সুইডেনের কাছে সমর্পণের জন্য আমি ইউরোপীয় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করব।’

এদিকে ইকুয়েডর অ্যাসাঞ্জের আটক জিনিসপত্র যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর শুরু করেছে। এ মাসের শুরুতে অ্যাসাঞ্জের ব্যবহৃত জিনিসপত্রগুলো নিজেদের জিম্মায় নিয়েছিল ইকুয়েডর। এসব জিনিসপত্রের মধ্যে রয়েছে পাণ্ডুলিপি, বিভিন্ন আকারের কাগজ, চিকিৎসাসংক্রান্ত তথ্যাদি এবং ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি। অ্যাসাঞ্জের জিনিসপত্র হস্তান্তরের ঘটনায় তাঁর আইনজীবী সমালোচনা করেছেন।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা