kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

দিল্লিতে বিরোধীদের জোট গঠন তৎপরতা তুঙ্গে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিল্লিতে বিরোধীদের জোট গঠন তৎপরতা তুঙ্গে

ভারতে গতকালই শেষ হলো লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম ও শেষ দফা নির্বাচন। এরই মধ্যে ক্ষমতাসীন দল বিজেপিবিরোধী তৎপরতা শুরু করে দিয়েছে বিরোধী দলগুলো। সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও একক বৃহত্তম দল হিসেবে উঠে এলে বিজেপি যাতে কোনো বাড়তি সুবিধা না পায়, তা নিশ্চিত করতেই বিরোধী দলগুলোকে এক সূত্রে গাঁথতে চাইছেন তেলেগু দেশম পার্টির নেতা ও অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। তাঁর তৎপরতায় ইতিবাচক সাড়াও মিলছে।

গত শনিবারও একই ধরনের তৎপরতা চলিয়েছিলেন তিনি। এরপর গতকালও দিল্লিতে একের পর এক বৈঠক করতে দেখা গেছে অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখরকে। গতকাল প্রথমে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, পরে সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। গতকাল বিকেলেই আবার ইউপিএ চেয়ারপারসন সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করার কথা ছিল তাঁর।

বিরোধীদলীয় জোট গঠনের জন্য দৃশ্যমানভাবেই দৌড়ঝাঁপ বাড়িয়েছেন তিনি। গত শনিবার অন্ধ্র প্রদেশ থেকে দিল্লিতে যান। এরপর লখনউ হয়ে আবার দিল্লি। ফল ঘোষণার পর বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর কৌশল কী হবে, তা ঠিক করতে এখন আক্ষরিক অর্থেই ঝোড়ের মেজাজে চন্দ্রবাবু। শনিবার দিল্লিতে যাওয়ার পরপরই তিনি ম্যারাথন বৈঠক করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি প্রধান শারদ পাওয়ার, লোকতান্ত্রিক জনতা দল নেতা শারদ যাদব ও বামপন্থী দলগুলোর সঙ্গে। গতকাল ফের তিনি দ্বিতীয়বারের জন্য বৈঠক করেন রাহুল গান্ধী, শারদ পাওয়ার ও সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গে।

এর পরই তিনি উড়ে গিয়েছিলেন লখনউ। সেখানে তিনি বৈঠক করেন উত্তর প্রদেশে বিজেপিবিরোধী জোটের মূল কাণ্ডারি ও সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদব এবং বহুজন সমাজ পার্টির প্রধান মায়াবতীর সঙ্গে। একের পর বৈঠক করলেও এগুলোতে কী আলোচনা হয়েছে, তা নিয়ে মুখ খোলেননি নাইডু। মনে করা হচ্ছে, শাসক এনডিএ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলে বিরোধীদের ভূমিকা কী হবে, তা ঠিক করতেই জোরদার শলাপরামর্শ চালাচ্ছেন তিনি।

শুধু চন্দ্রবাবু নন, তৎপরতা দেখা যাচ্ছে অন্য বিরোধী দলগুলোতেও। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন রাহুল। কংগ্রেস ও বিজেপিবিরোধী জোট সরকার গড়ার ডাক দিয়ে দিয়েছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী এবং টিআরএস নেতা চন্দ্রশেখর রাও। সূত্র : এনডিটিভি, আনন্দবাজার।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা