kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

পাঁচ বছরে প্রথম সংবাদ সম্মেলন মোদির

একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরব আমরা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরব আমরা

দিল্লিতে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপির প্রেসিডেন্ট অমিত শাহ। ছবি : এএফপি

লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফা ভোটের আগে প্রচার শেষ হওয়ার মুখে সংবাদ সম্মেলন করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপির নেতা নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেছেন, আবার সরকারি কাজে ফিরবেন তিনি। বিজেপিই ফের সরকার গঠন করবে বলে তাঁরা আশাবাদী।

প্রথম থেকেই সংবাদ সম্মেলন না করার জন্য সমালোচিত হয়ে আসছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু এবার নির্বাচনের আগে সংবাদমাধ্যমে বেশ কয়েকটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি। আর গতকাল শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনও করলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রিত্বের পাঁচ বছরে এই প্রথমবারের সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

এর আগে পশ্চিমবঙ্গে এক জনসভায় মোদি বলেন, ফের দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন তিনিই! দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হতে লোকসভায় যা আসন প্রয়োজন, ছয় দফার ভোটেই তা হাসিল হয়ে গেছে। তাঁর দাবি, বিজেপি একাই গোটা দেশে তিন শর বেশি আসন পাবে!

গতকাল দিল্লিতে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মোদির পাশে বসে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেন, এই প্রচার পর্বে ১৪২টি জনসভায় বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রায় এক কোটি ৫০ লাখ মানুষের সঙ্গে কথা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। তিন দিনে চার হাজার কিলোমিটার যাত্রা করেছে। মোদি বলেন, ‘আমরা অনেক ভেবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার কোনো কর্মসূচি বাতিল  করতে হয়নি। এই কর্মসূচি হয়ে গেলে আবার সরকারি কাজে ফিরে যাব। আমরা আশাবাদী আমাদের সরকার তৈরি হবেই।’ 

তবে সংবাদ সম্মেলনে মোদি সাংবাদিকদের হতাশ করেছেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহালমহল। এদিন মোদিকে প্রথমে একটি প্রশ্ন করা হয়। তার জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি দলে অনুগত সৈনিক। দলের সভাপতিই আমার কাছে সব।’ রাফালে যুদ্ধবিমানসংক্রান্ত অন্য একটি প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে অমিত বলেন, সব প্রশ্নের উত্তর প্রধানমন্ত্রীকেই দিতে হবে এর কোনো মানে নেই।’

এর আগে মোদি সপ্তম ও শেষ পর্বের ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাট কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সায়ান্তন বসুর সমর্থনে টাকিতে প্রচারে যান। সেখানে তিনি বলেন, ‘পঞ্চম ও ষষ্ঠ দফার নির্বাচন থেকেই বিজেপি সরকার গড়ার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে গেছে। বাংলায় প্রতিবার এসে আরো বেশি বেশি মানুষের সমর্থন, উৎসাহ দেখছি। আপনাদের একেকটা ভোট সরাসরি মোদির খাতায় যাবে। এখানে এসে মনে হচ্ছে, বিজেপি একাই ৩০০ আসন ছড়িয়ে যাবে! শরিকদের নিয়ে এনডিএ তাহলে আরো বেশি হবে।’ এর আগে বাংলায় এসে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী দাবি করে গিয়েছিলেন, মোদির আর প্রধানমন্ত্রী হওয়া হবে না। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রোজই বলছেন, মোদির বিদায় নিশ্চিত। মোদি এবার উল্টো হিসাব পেশ করলেন। টাকির পরে ডায়মন্ড হারবারে ও একই দাবি শোনা গেছে মোদির মুখে। সূত্র : এনডিটিভি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা