kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

অল্পের জন্য রক্ষা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইস্টার সানডের প্রার্থনায় যোগ দিতে রবিবার শ্রীলঙ্কার উপকূলীয় শহর নেগোম্বোর সেন্ট সেবাস্টিয়ানস চার্চে পরিবার নিয়ে যান দিলীপ ফার্নান্দো। তাঁরা যখন গির্জায় পৌঁছেন তখন গির্জা লোকে লোকারণ্য। দাঁড়ানোর জায়গাও নেই বললে চলে। এত ভিড় পছন্দ না হওয়ায় ফার্নান্দো সেখান থেকে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং চলেও যান। আর এই সিদ্ধান্তই ফার্নান্দো এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছে। তাঁরা গির্জা ছাড়ার পরপরই সেখানে একের পর এক বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। রবিবার শ্রীলঙ্কায় তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে ভয়াবহ বিস্ফোরণে অন্তত ২৯০ জন নিহত হয়েছে। এই তিন গির্জার মধ্যে একটি সেন্ট সেবাস্টিয়ানস।

গতকাল সোমবার সকালে ফার্নান্দো আবার গির্জায় এসেছিলেন। ৬৬ বছর বয়সী ফার্নান্দো বলেন, ‘আমি সাধারণত এখানে সেবা করার জন্য আসি। রবিবার আমি এবং আমার স্ত্রী এখানে এসেছিলাম। কিন্তু এত বেশি ভিড় ছিল যে দাঁড়ানোর জায়গাও পাচ্ছিলাম না। এ কারণে অন্য গির্জায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে এখান থেকে চলে যাই।’

ফার্নান্দো তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে চলে গেলেও সেখানেই থাকার সিদ্ধান্ত নেয় ফার্নান্দোর আরো সাত স্বজন। ভিড়ের কারণে তারা গির্জার ভেতরে ঢুকতে পারেনি। বাইরে অপেক্ষায় ছিল তারা।

ফার্নান্দো বলেন, ‘আমি খুবই ভাগ্যবান। কেননা সাধারণত আমি এই গির্জায় যাই। আমরা ভাগ্যবান তবে গ্রামবাসীর ভাগ্যে যা ঘটেছে তাতে আমরা দুঃখিত। তবে এ ঘটনায় আমরা মোটেও ভীত নই। আমরা কোনোভাবেই সন্ত্রাসীদের জয়ী হতে দেব না।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য