kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

পাকিস্তানে বাস থেকে নামিয়ে ১৪ জনকে গুলি করে হত্যা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে বাস থেকে নামিয়ে বন্দুকধারীরা অন্তত ১৪ যাত্রীকে হত্যা করেছে। নিহতদের মধ্যে নৌবাহিনীর একজন কর্মকর্তা এবং একজন কোস্ট গার্ড সদস্য রয়েছেন। ই-মেইলে বিবৃতি দিয়ে বালুচ বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী হত্যার দায় স্বীকার করেছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

বেলুচিস্তানের প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হায়দার আলী এএফপিকে বলেছেন, ‘হামলাকারীর সংখ্যা ছিল প্রায় দুই ডজন। তারা আধা সামরিক সীমান্তরক্ষী বাহিনীর উর্দি পরে ছিল। নিহতরা চারটি বাসে করে উপকূলীয় শহর ওরমার থেকে করাচির দিকে যাচ্ছিল। বন্দুকধারীরা মাকরান উপকূলীয় মহাসড়কে বাসগুলো থামায়। তারপর যাত্রীদের পরিচয়পত্র দেখে ১৬ জনকে বাস থেকে নামিয়ে গুলি করে। নিহতদের সবাই পাকিস্তানি নাগরিক বলে জানা গেছে। তাদের মধ্যে নৌবাহিনীর একজন কর্মকর্তা এবং একজন কোস্ট গার্ডের সদস্য রয়েছেন।’

বালুচ বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর এক মুখপাত্র হত্যার দায় স্বীকার করে জানিয়েছে, বেসামরিক কোনো নাগরিককে হত্যা করা হয়নি। বেছে বেছে সেনাবাহিনী এবং উপকূলরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের হত্যা করা হয়েছে। পরিচয়পত্র দেখে নিশ্চিত হওয়ার পরই তাদের হত্যা করা হয়।’

পাকিস্তানের ডন পত্রিকা জানিয়েছে, বাস থেকে ১৬ জনকে নামানো হলেও তারা ১৪ জনকে হত্যা করেছে। অন্য দুজন কোনোমতে পালিয়ে গিয়ে নিকটবর্তী আধা সামরিক বাহিনীর ফাঁড়িতে খবর দেন।

গোয়াদর শহরের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ডাক্তাররা বলেন, বুলেটের আঘাতে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের বেশির ভাগকে মাথায় গুলি করা হয়েছে।

২০০৪ সাল থেকে বেলুচিস্তান প্রদেশে পাকিস্তানের নিরাপত্তাকর্মীরা বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলার শিকার হচ্ছেন। বেলুচিস্তান পাকিস্তানের সবচেয়ে দরিদ্র প্রদেশ। আফগানিস্তান ও ইরানের সঙ্গে প্রদেশটির সীমান্ত রয়েছে। পাকিস্তানের দাবি, এই দুই দেশ থেকে জঙ্গিরা এসে তাদের দেশে হামলা চালাচ্ছে। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য