kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

তালেবান মুখপাত্রের ঘোষণা

শান্তি আলোচনায় নারীদের অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগান শান্তি আলোচনায় প্রথমবারের মতো নারীদের অন্তর্ভুক্ত করতে যাচ্ছে তালেবান। গত সোমবার তালেবানের প্রধান মুখপাত্র এ তথ্য জানান। এ মাসেই কাতারের রাজধানী দোহায় এই আলোচনা শুরু হওয়ার কথা। আফগান লড়াই বন্ধে সম্ভবত এটিই সর্বশেষ ও চূড়ান্ত দফার আলোচনা।

কট্টর রক্ষণশীল তালেবানের নারী অধিকারের ব্যাপারে অবস্থান সম্পর্কে অনেকেরই উদ্বেগ রয়েছে। চলমান শান্তি আলোচনায় নারীদের অন্তর্ভুক্ত করার দাবিও নতুন নয়। তালেবানের এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে ভবিষ্যৎ শান্তি প্রক্রিয়ার একটি বড় বাধা দূর হলো।

আগামী ১৯-২১ এপ্রিল দোহায় তালেবানের সঙ্গে আফগানিস্তানের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদলের বৈঠক হবে। আফগন প্রতিনিধিদলের মধ্যে বিরোধীদলীয় রাজনীতিক এবং সুধীসমাজের সদস্যরা অংশ নেবেন। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে মস্কোতে একই ধরনের আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। মস্কো আলোচনায় অংশ নেওয়া আফগান প্রতিনিধিদলের সঙ্গে এবার হয়তো কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তাও যোগ দেবেন।

তালেবানের প্রধান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ গত সোমবার টেলিফোনে বলেন, ‘কাতারের দোহার বৈঠকে তালেবান প্রতিনিধিদলের মধ্যে নারীরাও থাকবেন।’ তিনি কারো নাম জানাননি তবে বলেন, ‘এসব নারীর সঙ্গে তালেবান শীর্ষ নেতাদের পারিবারিক সম্পর্ক নেই। তারা সাধারণ আফগান। দেশের ভেতরে অথবা বাইরে বাস করে।’ তিনি পরে এক টুইটে আরো বলেন, শুধু আফগানদের মধ্যে যে আলোচনা হবে তাতেই অংশ নেবেন নারীরা। মার্কিন প্রতিনিধি জালমে খালিলজাদের সঙ্গে আলোচনায় তাঁরা থাকবেন না।

তবে খালিলজাদের সঙ্গে তালেবান নেতাদের বৈঠক কবে কোথায় হবে সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র এক ই-মেইলে বলেন, ‘তালেবানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন পর্যায়ের আলোচনার ব্যাপারে আমরা এখনই কিছু বলতে চাই না। নতুন করে আলোচনা শুরুর আগে আফগানদের নিজেদের মধ্যকার আলোচনার ফলাফল কী হলো তা জানতে চাই আমরা।’ সূত্র : রয়টার্স।

মন্তব্য