kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

কড়া বাঁধা হাতেও বর্ণবাদের প্রশস্তি হত্যাকারীর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কড়া বাঁধা হাতেও বর্ণবাদের প্রশস্তি হত্যাকারীর

গতকাল আদালতে তোলা হয় ব্রেন্টন টারান্টকে। ছবি : এএফপি

হাতকড়া বাঁধা হাতেও বর্ণবাদের প্রতীক দেখালেন নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলাকারী ব্রেন্টন টারান্ট। শুক্রবার টারান্টের গুলিতে তিন বাংলাদেশিসহ অন্তত ৪৯ জন প্রাণ হারায়। গুলি চালিয়ে মানুষ হত্যার অভিযোগ এনে টারান্টকে গতকাল শনিবার ক্রাইস্টচার্চের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে হাজির করা হয়। বিচারক তাঁকে আগামী ৬ এপ্রিল পর্যন্ত আটক রাখতে বলেছেন।

টারান্টকে আদালতে নিয়ে যান দুজন পুলিশ সদস্য, এ সময় তাঁর দেহে ছিল বন্দিদের পোশাক, হাতকড়ায় বাঁধা ছিল হাত। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানায়, এ সময় হাতকড়ার মধ্যে আঙুল দিয়ে ‘শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্বের’ বর্ণবাদী প্রতীক দেখাচ্ছিলেন টারান্ট।

মানুষের মধ্যে শ্বেতাঙ্গরা শ্রেষ্ঠ—এটা যারা মনে করে, তারা আঙুলের মাধ্যমে বিশেষ চিহ্ন তৈরি করে প্রতীক হিসেবে তার প্রকাশ ঘটিয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে বৃদ্ধা ও তর্জনী আঙুল বৃত্তাকারে একসঙ্গে যুক্ত করলে তা ‘পি’-এর আকৃতি নেয়, যা দিয়ে পাওয়ার বা শক্তি বোঝানো হয়। আর বাকি তিনটি আঙুল তখন ‘ডাব্লিউ’-এর রূপ নেয়, যা দিয়ে বোঝানো হয় হোয়াইট বা সাদা। ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় টারান্ট বন্দি হওয়ার পরও তাঁর বর্ণবাদী মনোভাব এভাবে তুলে ধরেন।

হত্যাযজ্ঞের পুরো ঘটনা ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার করেছিলেন টারান্ট, ইন্টারনেটে ছড়িয়েছেন বর্ণবাদী, অভিবাসীবিদ্বেষী, উগ্র ডানপন্থী বার্তা।   

গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, হামলা চালানোর আগে টারান্ট তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে ৭৩ পৃষ্ঠার একটি কথিত ‘ম্যানিফেস্টো’ প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি নিজেকে বর্ণনা করেছেন ভাষায়, সংস্কৃতিতে, রাজনৈতিক বিশ্বাস আর দর্শনে, আত্মপরিচয়ে এবং বংশপরিচয়ে একজন ইউরোপীয় হিসেবে।

টারান্ট তাঁর তথাকথিত ‘ম্যানিফেস্টোতে’ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্বের প্রতীক’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

হামলার উদ্দেশ্য বর্ণনা করতে গিয়ে নিজের অভিবাসনবিরোধী ও মুসলিমবিরোধী অবস্থানের কথা তুলে ধরেছেন টারান্ট। এক জায়গায় তিনি নিজেকে ‘এথনোন্যাশনালিস্ট ও ফ্যাসিস্ট’ হিসেবেও বর্ণনা করেছেন।

সূত্র : রয়টার্স।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা