kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

'প্রগতির আলো সর্বত্র ছড়িয়েছিলেন নিখিল সেন'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ১১:৪৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'প্রগতির আলো সর্বত্র ছড়িয়েছিলেন নিখিল সেন'

চারণের মতো ঘুরে ঘুরে বরিশালের সর্বত্রই সংস্কৃতি ও প্রগতির আলো ছড়িয়েছিলেন নিখিল সেন। এ কাজে তিনি জীবনের প্রায় পুরোটা সময় বিলিয়েছেন। বাংলাদেশের মাটি ও মানুষ, বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির জন্য তার ছিল অনন্য ভালোবাসা ও আত্মত্যাগ। অসাম্প্রদায়িক চেতনা, মানবিকতা ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধকে জাতীয় পর্যায়েও ছড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। নিজের আলোয় উদ্ভাসিত করেছেন অসংখ্য মানুষকে।

একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রয়াত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নিখিল সেনের স্মরণসভায় বিশিষ্টজন এসব কথা বলেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল স্মৃতি মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে নিখিল সেন স্মৃতি পরিষদ। পুষ্পাঞ্জলি, কবিতা, গান, আলোচনা ও স্মৃতিচারণায় স্মরণ করা হয় এই সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বকে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বরিশালের সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সংস্কৃতিজনের অভিভাবক ছিলেন তিনি। তাঁর হাতেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বরিশাল শিল্পী সংসদ, বরিশাল থিয়েটার প্রভৃতি সাংস্কৃতিক সংগঠন। বক্তারা বলেন, নিখিল সেনের ধ্যানজ্ঞান ছিল নাটক ও আবৃত্তি। নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি ২০টির বেশি নাটকের নির্দেশনাও প্রদান করেন তিনি। এ ছাড়াও ভাষা আন্দোলনের সক্রিয় সদস্য ছিলেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হিসেবে পালন করেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন একুশে পদক, শিল্পকলা পদক, মুনীর চৌধুরী সম্মাননা, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান পদক, রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সংস্থা সম্মাননা ছাড়াও অসংখ্য পদক ও পুরস্কার। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন তিনি।


 

আয়োজক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মনজুরুল আহসান খান, অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, নাট্যজন আতাউর রহমান, নাট্যজন মামুনুর রশীদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব খায়রুল আলম সবুজ, গোলাম কুদ্দুছ, রাজনীতিক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ আজিজুল হক, সাংবাদিক অজয় দাশগুপ্ত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার, আবৃত্তিজন ইস্তেকবাল হোসেন, অধ্যাপক ইমানুল হাকিম, কবি ও সাংবাদিক অরূপ তালুকদার, অধ্যাপক দেবী শর্মা, শিক্ষক রাজিয়া বেগম, শামসুদ্দিন কামাল, সৈয়দ আওলাদ প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য দেন পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সাংবাদিক তৌফিক মারুফ। নিখিল সেনকে নিয়ে ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করেন আয়োজক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আরিফ রহমান। উপস্থাপনা করেন অভিনয়শিল্পী কাজী রুমা ও আবৃত্তিকার মাসুদুজ্জামান। আবৃত্তি করেন ভাস্বর বন্দোপাধ্যায় ও বেলায়েত হোসেন। সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী সুনীল  ঘোষ, হাসান আবেদুর রেজা জুয়েল ও লুতফুন নাহার পাখি। আয়োজনে প্রয়াত নিখিল সেন এর বিভিন্ন প্রজন্মের ভক্ত অনুরাগী উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা