kalerkantho

শনিবার  । ১৯ অক্টোবর ২০১৯। ৩ কাতির্ক ১৪২৬। ১৯ সফর ১৪৪১                     

শেষ হলো পথনাটক উৎসব ‘পথনাটক প্রতিবাদের কথা বলে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৯ ০৪:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেষ হলো পথনাটক উৎসব ‘পথনাটক প্রতিবাদের কথা বলে’

‘পথনাটক সমাজের অসঙ্গতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদের কথা বলে। যারা পথনাটক করেন তাঁরা নাটকের ফেরিওয়ালা। দেশ ও জাতির ঐতিহ্য নিয়েই পথনাটকের পথচলা। আমি সবসময় সংস্কৃতিকর্মীদের সাথে আছি। আপনাদের সাথে থেকে এই অঙ্গনকে কিভাবে আলোকিত করা যায় সে বিষয়ে সবসময় কাজ করে যেতে চাই। পারিবারিকভাবে আমি সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলে বেড়ে উঠেছি। তাই আমিও সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলের বাইরের কেউ নই।’

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত ‘নব সৃজনের শিল্প মাটি, দেয় শক্তি আনে মুক্তি’ শিরোনামে সপ্তাহব্যাপী পথনাটক উৎসব শেষ হয় বৃহস্পতিবার। এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি পথনাটক পরিষদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে একটি অফিস করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের এ উৎসবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার ৪৯টি দলের নাটক মঞ্চস্থ হয়।

অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন সংস্কৃতিজন রামেন্দু মজুমদার, নাট্যজন মামুনুর রশীদ ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ। সভাপতিত্ব করেন পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা। পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহাম্মেদ গিয়াসসহ অন্যরা এতে বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সাত দিনের উত্সবে ৪৮টি নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে, যার ৪৭টিরই প্রথম মঞ্চায়ন। আর নতুন ১৫ জন নাট্যকারের প্রথম নাটক পরিবেশিত হয়েছে। এবারই প্রথমবারের মতো প্রতিটি নাটকের দলকে পরিষদের পক্ষ থেকে দশ হাজার টাকা করে সম্মানি দেওয়া হয়েছে। 

আলোচনার পর শুরু হয় নাটক পরিবেশনা। শুরুতে নাটক নিয়ে মঞ্চে আসে বিয়ানীবাজার সাংস্কৃতিক কমান্ড। আবদুল ওয়াদুদের রচনা ও নির্দেশনায় দলটি মঞ্চায়ন করে নাটক ‘বিদ্রোহী’। এরপর নাট্যদীপের পরিবেশনায় ছিল নাটক ‘পাগলের হাট-বাজার’। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন আসমা আক্তার লীজা। শেষ দিনে যে দলগুলো নাটকে অংশ নেয় সেগুলো হলো ঢাকা থিয়েটার (অসমাপ্ত গল্প, রচনা ও নির্দেশনা এহসানুর রহমান), সুবচন নাট্যসংসদ (মুখোস, রচনা আতিক রহমান, নির্দেশনা আহম্মেদ গিয়াস), অবয়ব নাট্যদল (প্রতিস্পর্শ, রচনা অনিক রহমান, নির্দেশনা শহিদুল শ্যানন) ও থিয়েটার আর্ট ইউনিট (জাল, রচনা ও নির্দেশনা স্বাধীন শাহ)। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা