kalerkantho

সোমবার । ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১১ রবিউস সানি ১৪৪১     

পর্ন তারকাদের বিরক্তির কারণ ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ক্যামরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ এপ্রিল, ২০১৬ ১৯:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পর্ন তারকাদের বিরক্তির কারণ ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ক্যামরা

ভার্চুয়াল রিয়েলিটি যন্ত্রগুলো আধুনিক প্রযুক্তির আলোচিত এক অংশ। এটিও হতে চলেছে ভবিষ্যত- এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু ভার্চুয়াল ক্যামেরা নিয়ে বড়ই বিরক্তিকর সময় কাটাচ্ছেন পর্ন তারকারা। কিছু দিন আগেই অবশ্য সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছিলেন, এই ক্যামেরা বিলিয়ন ডলারের পর্ন ইন্ডাস্ট্রিকে বহু দূর এগিয় নেবে। কিন্তু পর্ন ছবির তারকারা দেহের বিভিন্ন অংশে অদ্ভুত দর্শন ভার্চুয়াল ক্যামেরা বহন করতে গিয়ে রীতিমতো বিরক্ত।

সোশাল মিডিয়া রেডিট এএমএ'তে পর্নহাবের কর্মীদের কাছে নানা প্রশ্ন করা হয়। ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ক্যামেরার মাধ্যমে পর্নে নতুন স্বাদ দিতে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের দেহের বিভিন্ন অংশে এগুলো জুড়ে দেওয়া হচ্ছে। এতে তাদের পারফরমেন্সে নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।

এক কর্মী কোরি বলেন, অভিনেতাদের কাঁধে ভারী ওজনের ভিআর ক্যামেরা ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এতে তাদের চলাফেরা বা পারফরমেন্সে ঝক্কি পোহাতে হচ্ছে। আর নারীদের সমস্যা তো আরো বেশি। তারা এগুলো নিয়ে ঠিকমতো নড়াচড়াই করতে পারেন না।

ভিআর প্রযুক্তিকে ক্রমেই ঝিমিয়ে পড়া পর্ন ইন্ডস্ট্রিকে চাঙ্গা করার হাতিয়ার বলে গণ্য করা হয়েছিল। এর মাধ্যমে ছবিগিুলোকে আরো আকর্শণীয় করা হবে বলে ধারণা করেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু যারা এ ছবির মূল আকর্ষণ তারাই এগুলোর ব্যবহার করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন।

গত বছরই প্রযুক্তি বিশারদরা জানান, ভিআর যন্ত্রগুলো এ বছরের আলোচনার মূল প্রতিপাদ্য হবে। এ বছর ৮৯৫ মিলিয়ন ডলারের রেভিনিউ আসবে এ খাত থেকে। ইতিমধ্যে ফেসবুকের অকুলাস রিফট, এইচটিসির ভাইভ এবং সনির প্লেস্টেশন ভিআর সবার নজর কাড়ে।

'ইন্টারস্টেলার' ছবিতে এ যন্ত্র ব্যবহার করা হয় ছবির মাঝে অনন্য কিছু যোগ করতে। দৃশ্যমান কিছুতে ভার্চুয়াল রিয়েলিটির মজা যোগ করতেই মূলত এসব যন্ত্র আসছে বাজারে।

এ বছরের ট্রিবেকা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের মূল আকর্ষণ হবে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি যন্ত্র। এতকিছুর পরও পর্ন তারকাদের যন্ত্রটি মোটেও ভালো লাগেনি। তারা এ নিয়ে ব্যাপক বিড়ম্বনায় রয়েছেন। সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা