kalerkantho

রবিবার । ৪ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আগের দিন কথা কাটাকাটি, পরের দিন অপহরণ!

বারহাট্টা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

২ নভেম্বর, ২০২২ ০২:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগের দিন কথা কাটাকাটি, পরের দিন অপহরণ!

নেত্রকোনার বারহাট্টায় কথা কাটাকাটির জেরে রিপন মিয়া (১৬) নামের এক ছাত্রকে মারধর ও অপহরণের অভিযোগ উঠেছে তারই বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রের বিরুদ্ধে। উপজেলার বাউসি অর্ধচন্দ্র উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের (স্কুল অ্যান্ড কলেজ) গেটে মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) বিকেলের দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগে জানা গেছে। রিপন ওই বিদ্যালয়ের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ও এলাকার পূর্বদত্তখিলা গ্রামের মন্তাজ উদ্দিনের ছেলে।

বারহাট্টা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ লুৎফল হক এই অভিযোগের কথা স্বীকার করেছেন।

বিজ্ঞাপন

রিপনের বাবা মন্তাজ উদ্দিন বলেন, গত সোমবার (৩১ অক্টোবর) আমার ছেলের সঙ্গে বারহাট্টা সদর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের ছালাম মিয়ার ছেলে ইমনের (১৮) কথা কাটকাটি হয়। ইমন আমার ছেলের সঙ্গে একই কলেজে পড়ে। সে এবার এইচএসসি পরীক্ষার্থী। তাদের মাঝে ঘটে যাওয়া সোমবারের বিষয়টিকে আমরা তেমন গুরুত্ব দেই নাই। কিন্তু আজকে (মঙ্গলবার) আমার ছেলে রিপন কলেজ থেকে বের হয়ে গেটের দিকে আসলে সেখানে ইমন ও বাপ্পিসহ আরো ১০/১২ জন ছেলে তাকে মারধর ও জোর করে অটোরিকশায় তুলে অজ্ঞাত স্থানের দিকে চলে যায়। সম্ভাব্য সকল স্থানে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। বিষয়টি বারহাট্টা থানায় জানানো হয়েছে।

এদিকে ইমনের বাবা ছালাম জানান, রিপনের সঙ্গে সোমবার কথাকাটাটির ঘটনা ঘটলেও আজ (মঙ্গলবার) তাদের মাঝে কোনো কিছু ঘটে নাই। ইমন বাউশী যায় নাই, সে বাড়িতেই আছে।

বারহাট্টা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ লুৎফল হক রাত পৌনে ৮টায় জানান, রিপনকে বাউশী ইউনিয়নের ছালিপুড়া গ্রাম এলাকা থেকে তার স্বজনরা উদ্ধার করেছে। তাকে মারধরের খবর পাওয়া গেছে। বর্তমানে সে নেত্রকোনা সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে আমাদের জানানো হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। অনুসন্ধানে আসল রহস্য জানা যাবে।



সাতদিনের সেরা