kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

চরের ২০ হাজার মানুষের সেবায় ওয়াটার অ্যাম্বুল্যান্স

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০২২ ২০:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চরের ২০ হাজার মানুষের সেবায় ওয়াটার অ্যাম্বুল্যান্স

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে মেঘনা নদী বেষ্টিত বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন চর আবদুল্লাহসহ উপকূলীয় ২০ হাজার মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্বপ্নযাত্রা ওয়াটার অ্যাম্বুল্যান্স উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে রামগতি পৌরসভার আলেকজান্ডার মেঘনা নদীতে জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনোয়ার হোছাইন আকন্দ ফিতা কেটে এর উদ্বোধন করেন। এ সময় চাবি হস্তান্তর করা হয়।

আয়োজকরা জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন আমার গ্রাম আমার শহর বাস্তবায়নে এ অ্যাম্বুল্যান্স সেবা চালু করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ উপলক্ষে আলেকজান্ডার বেড়িবাঁধ এলাকায় আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। জাইকা, জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের অর্থায়নে প্রায় ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে অ্যাম্বুল্যান্সটি কেনা হয়। এটি বিচ্ছিন্ন চর আবদুল্লাহসহ নদীতীরবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে ভূমিকা রাখবে।   

রামগতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরাফ উদ্দিন আজাদ সোহেলের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম শান্তনু চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবুল হাসনাত খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবদুল ওয়াহেদ, বড়খেরী নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক ফেরদৌস আহমেদ, রামগতি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুর রসুল, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জাকির হোসেন ভূঁইয়া আজাদ প্রমুখ।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরাফ উদ্দিন আজাদ সোহেল বলেন, ‘আমাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি নদীর পাশেই। অ্যাম্বুল্যান্সটির মাধ্যমে দুর্গম চরের মানুষগুলো খুব সহজেই সেবা নিতে পারবে। এখন আর কাউকে অসুস্থ অবস্থায় পড়ে থাকতে হবে না। ’ 

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক আনোয়ার হোছাইন আকন্দ জানান, চর আবদুল্লাহ উপজেলা থেকে একেবারেই বিচ্ছিন্ন। সেখানকার মানুষ অসুস্থ হলে দ্রুত চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হয় না। প্রসূতিদের হাসপাতাল আনা সম্ভব হয় না। বিষয়টি বিবেচনা করে স্বপ্নযাত্রা ওয়াটার অ্যাম্বুল্যান্স ব্যবস্থা করা হয়েছে। চর আবদুল্লাহর বাসিন্দা ছাড়াও নদীতীরবর্তী এলাকার সকল মানুষ সেবা নিতে পারবে। এখানে সেবা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভর্তুকি দেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা