kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রামের রাউজান

২৩ সিসি ক্যামরার সংযোগ কেটে পাঁচ দোকানে লুটপাট

আহত একজন হাসপাতালে

রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৬ অক্টোবর, ২০২২ ১৬:৩৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



২৩ সিসি ক্যামরার সংযোগ কেটে পাঁচ দোকানে লুটপাট

চট্টগ্রামের রাউজানের ডাবুয়া জগন্নাথহাট প্রকাশ বাইন্যা হাটে তিন নৈশপ্রহরীকে বেঁধে এবং ২৩টি সিসি ক্যামরার সংযোগ কেটে পাঁচ দোকানে লুটপাট চালিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা। দোকান থেকে বের হওয়ায় একজনকে বেধম মারধর করে আহত করা হয়েছে। আহত মো. বখতেয়ার নামের ওই ব্যক্তি চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বুধবার (৫ অক্টোবর) দিবাগত রাত প্রায় ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

 

বাজার কমিটি ও ঘটনার শিকার দোকান মালিকরা জানান, ১০-১১ জন মুখোশ পরিহিত ও হাফপ্যান্ট পরা দুস্কৃতিকারীর একটি দল সিএনজি অটোরিকশাযোগে বাজারে আসে। তারা বাজারের রক্ষিত ২৩টি সিসি ক্যামরার লাইন কেটে দেয়। দায়িত্বরত তিনজন নৈশপ্রহরীকে বেঁধে পাঁচটি দোকানের তালা কেটে নগদ টাকা ও মালামাল লুট করে করে নিয়ে যায়। পরে ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ এসে নৈশপ্রহরীদের উদ্ধার করে।

বাজার কমিটির সভাপতি, ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ও সাধারণ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমাদের সন্দেহ এরা ডাকাতি করতে এসেছিল। পুলিশ আসার খবর পাওয়ায় তারা পালিয়েছে। চোরের আঘাতে বাজারের নাইটগার্ড মমতাজ সওদাগরের মাথা ও গলা ফুলে  গেছে। তার পরনের লুঙ্গি ছিড়ে তার মুখ বেঁধে রাখা হয়। অপর দু’ পাহারাদার দিদার ও টুকুকেও বেঁধে টাওয়ার গলিতে ফেলে রাখা হয়। বাজারের বাসু সওদাগরের ব্যক্তিগত সিসি ক্যামরা চালু থাকায় চোরচক্রের আংশিক দৌড়াদৌড়ি ওই ক্যামরাতে রেকর্ড হয়েছে।  
বাজারের একটি টেইলারিং দোকানের কর্মচারী মো. বখতেয়ারকে মেরে গুরুতর আহত করে দুষ্কৃতিকারীরা। তিনি চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। লুটপাটের শিকার হয়েছে সিরাজ চেয়ারম্যানের মুদির দোকান, নুর মোহাম্মদের লাইব্রেরি, মামুন  ট্রেডার্স, নাজিমের মুদির দোকান, সুমনের মুদির দোকান। তাদের প্রত্যকের দোকানের তালা কেটে ও ভেঙে নগদ টাকা ও জিসিপত্রসহ কমপক্ষে একলাখ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে তারা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মিঠু শীল বলেন, তারা হয়তো ডাকাতির উদ্দেশ্যে এসেছিল।
 
প্রত্যক্ষদর্শী বাজারের পাশের বাসিন্দা মাওলানা সৈয়দ তৈয়বুর রহমান জানান, আমি শহরে আয়োজিত একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফিরছিলাম। রাত ৩টা ১০ মিনিটের দিকে বাজারে দেখতে পাই কয়েকজন মুখোশ ও লাল রঙের হাফপ্যান্ট পরা লোক আমাকে দেখে বলে ওঠে, আপনি চলে যান। আমরা রাজনৈতিক সমস্যার কারণে এসেছি। তৈয়ব বলেন,  তাদের দেখে আমার হাত-পা কাঁপতে থাকে। আমার পেছনে পেছনে তাদের তিনজন আমার বসতঘর পর্যন্ত এসেছে। পরে ফিরে গেছে। সকালে জানতে পারি, বাজারের দোকান চুরি হয়েছে।

রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ দ্রুত গিয়ে পাহারাদারদের উদ্ধার করে। খুব দ্রুত চোরদের শনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা  নেয়া হবে।
 
এদিকে বাজার ব্যবসায়ীরা বলেন, বাজারের এক কিলোমিটারের ব্যবধানে চিকদাইর পুলিশ ফাঁড়ি। তারা তীক্ষ্ন নজর রাখলে বাজারে এমন কাজ করতে পারতো না।  

ডাবুয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ আবদুর রহমান সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের থানায় অভিযোগ দায়ের করতে বলেছি।



সাতদিনের সেরা