kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ এক ডিগ্রি বেশি : জি এম কাদের

রংপুর অফিস   

৩ অক্টোবর, ২০২২ ১৭:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ এক ডিগ্রি বেশি : জি এম কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের বলেছেন, ‘যে জন্য আওয়ামী লীগ সরকারকে সমর্থন দেওয়া হয়েছিল তার বাস্তব প্রতিফলন ঘটেনি। এ সরকার ক্ষমতায় এসে যা করছে তা বিএনপির চেয়ে এক ডিগ্রি বেশি। আমরা এর পরিবর্তন চাই। ’ আজ সোমবার দুপুরে রংপুর সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

জি এম কাদের আরো বলেছেন, বিএনপির চেয়েও বেশি জুলুম-নির্যাতন করছে আওয়ামী লীগ। সরকারের কার্যক্রমে হতাশ জাতীয় পার্টি। দেশের অবস্থা ভয়াবহ নাজুক, সরকার মেগাপ্রকল্পের নামে জনগণের ওপর যে ঋণের বোঝা চাপিয়ে দিচ্ছে, দেশের মানুষ তা কতটুকু সইতে পারবে সে বিষয়ে তিনি সন্দেহ প্রকাশ করেন। অর্থনীতিতে সামনে বড় ধরনের বিপর্যয় ঘটতে পারে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

জাতীয় পার্টিতে ভাঙনের বিষয়ে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টিতে কোনো ভাঙন নেই। দলকে শক্তিশালী করতেই কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একটা দলে থাকলে অনেকেই নির্বাচন করতে আগ্রহ প্রকাশ করে। এর মধ্য থেকে আমরা একজনকে বেছে নিই। রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বর্তমান মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

নির্বাচনে জোট গঠনের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জি এম কাদের বলেন, ‘এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমাদের নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এর ওপর আমাদের ভবিষ্যৎ রাজনীতির অস্তিত্ব নির্ভর করছে। তাই তৃণমূল থেকে দলের উচ্চ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। ’

বিএনপির সঙ্গে গোপন আঁতাতের বিষয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘আমরা গোপন কোনো আঁতাত করি না। যা কিছু হবে স্বচ্ছ। ’ বিএনপির সঙ্গে আওয়ামী লীগের নীতিগত পার্থক্য থাকলেও তাদের কর্মকাণ্ড উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ এদের বাইরে কাউকে চায়। দেশের মানুষ সামাজিক নিরাপত্তা চায়, দেশের মানুষ খুন-ধর্ষণ-লুটপাট থেকে মুক্তি চায়। আমরা আমাদের নিজস্ব রাজনীতি এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। দেশের মানুষকে সুস্থ রাজনীতি উপহার দিতে চাই। ’

এরশাদের শাসনামলের কথা উল্লেখ করে জি এম কাদের বলেন, ‘এরশাদের শাসনামলে এসব ছিল না। সংখ্যালঘুরা ভালো ছিল। দেশে সুশাসন ছিল। দুর্নীতি কম ছিল। আমরা তেমন সুশাসন নিশ্চিত করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। ’

দেশের সার্বিক পরিস্থিতি অত্যন্ত নাজুক উল্লেখ করে জি এম কাদের বলেন, ‘রাজনৈতিক পরিস্থিতি অস্থিতিশীল। সামনে নির্বাচন। কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত কিছুই বুঝতে পারছি না। নির্বাচনে সব দল অংশ নেবে কি না, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে কি না তা বুঝতে পারছি না। ’

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা আরো বেশি নাজুক জানিয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘দেশে প্রবাস আয় কমে যাচ্ছে। যেখানে আমদানি ব্যয় বাড়ছে এবং রিজার্ভ কমে আসছে সেখানে বিভিন্ন মেগাপ্রকল্পের যে ঋণ তার বোঝা দেশ কতটুকু বইতে পারবে তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছি। ’

পাঁচ দিনের সফরে ঢাকা থেকে দুপুর ১২টায় সৈয়দপুর বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান জি এম কাদের। পরে সড়কপথে রংপুর সার্কিট হাউসে পৌঁছলে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান নেতাকর্মীরা।

এ সময় জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল মাসুদ নান্টু, সদস্যসচিব আব্দুর রাজ্জাক, মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসীরসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।  



সাতদিনের সেরা