kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ছেলেকে পাগল বলায় প্রতিবেশীর সন্তানকে হত্যা

যশোর প্রতিনিধি    

২ অক্টোবর, ২০২২ ১৭:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছেলেকে পাগল বলায় প্রতিবেশীর সন্তানকে হত্যা

সানজিদা জান্নাত মিষ্টি

যশোর সদর উপজেলার পতেঙ্গালি এলাকা থেকে নিখোঁজের ১২ ঘণ্টা পর প্রতিবেশীর চালের ড্রাম থেকে সানজিদা জান্নাত মিষ্টি (৪) নামের চার বছরের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আঞ্জুয়ারা বেগম ও রেজাউল ইসলাম রেজা নামের দুজনকে আটক করা হয়। সানজিদা ওই গ্রামের সোহেল হোসেনের মেয়ে।

গতকাল শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, আঞ্জুয়ারার প্রতিবন্ধী ছেলে অপূর্ব হাসানের (৭) সাথে সানজিদার হাতাহাতির ঘটনায় শিশুটির মা শরিফা বেগম অপূর্বকে পাগল বলেন। এরই প্রতিশোধ নিতে সানজিদাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন আঞ্জুয়ারা।

পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা জানায়, শনিবার দুপুর ১২টার পর থেকে নিখোঁজ হয় সানজিদা। স্বজন ও প্রতিবেশীরা তাকে বিভিন্ন স্থানে খুঁজে না পেলে যশোর কোতোয়ালি থানায় জিডি করেন শিশুটির বাবা সোহেল হোসেন। জিডির কপি নিয়ে ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে যান সোহেল ও তার স্ত্রী। এ ঘটনায় আঞ্জুয়ারাকে সন্দেহ হলে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চালের ড্রাম থেকে সানজিদার লাশ উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ।

ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম জানান, তদন্তের একপর্যায়ে সানজিদার মা-বাবার সাথে থাকা আঞ্জুয়ারা বেগমের কথাবার্তায় সন্দেহ হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি সানজিদাকে হত্যা করে নিজ ঘরের চালের ড্রামে লুকিয়ে রাখার কথা স্বীকার করেন।  



সাতদিনের সেরা