kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নিজ জেলায় সংবর্ধনা পেলেন কৃষ্ণা-ছোটন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

২ অক্টোবর, ২০২২ ১১:৫৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নিজ জেলায় সংবর্ধনা পেলেন কৃষ্ণা-ছোটন

সাফ চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা জয়ী বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের স্ট্রাইকার কৃষ্ণা রাণী সরকার ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনকে সংবর্ধণা দিয়েছে টাঙ্গাইল জেলা ক্রীড়া সংস্থা। শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে জেলার দুই কৃতি সন্তানের সম্মানে এ আয়োজন করা হয়।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান ফারুক। জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ড. আতাউল গণির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন টাঙ্গাইল সদর আসনের সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান আনছারী প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

 
বক্তারা বলেন, কৃষ্ণা ও ছোটন আমাদের অহংকার। তারা আমাদের জেলার এবং দেশের মুখ উজ্জল করেছে। আমরা তাদের জন্য গর্বিত। ভবিষতে আরো সাফল্য কামনা করছি।  

কৃষ্ণা রাণী সরকার ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটন সংবর্ধনা পেয়ে সবার কাছে সন্তোষ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এ সময় কৃষ্ণা রানী সরকার বলেন, আমি বাবার কষ্ট দেখেছি। মা অনেক কষ্ট করেছেন। এ প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে অনেক প্রতিকুলতার মধ্যে দিয়ে ফুটবল খেলতে হয়েছে। সব বাঁধা বিপত্তি অতিক্রম করে আজ এখানে আসতে পেরেছি। আমার এই সাফল্য কোচ ও শিক্ষকদের সহযোগিতার জন্য হয়েছে। দেশের জন্য ভাল কিছু উপহার দিতে পারি, সেজন্য সকলের দোয়া চাই। নারী ফুটবল খেলোয়াড় বেরিয়ে আসুক। যারা দেশেকে অনেক কিছু উপহার দিতে পারবে।  

জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে কৃষ্ণা রাণী সরকারকে এক লাখ ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনকে পঞ্চাশ হাজার টাকাসহ ক্রেস্ট দেওয়া হয়। ফজলুর রহমান ফারুক ব্যক্তিগতভাবে কৃষ্ণা রাণী সরকার ও কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটনকে স্বর্ণের চেন উপহার দেন।  
এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কৃষ্ণাকে এক লাখ ও  ছোটনকে পঞ্চাশ হাজার, পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে কৃষ্ণাকে এক লাখ ও ছোটনকে পঞ্চাশ হাজার, ছানোয়ার হোসেনের পক্ষ থেকে দুইজনকে পঁচিশ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়।  

অপরদিকে জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা, সদর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ বিভিন্ন সংগঠণের পক্ষ থেকে সংবর্ধিতদের ক্রেস্ট দেওয়া হয়। ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে সংবর্ধিতদের পরিবারের সদস্যসহ কৃষ্ণার স্কুল কোচ ও গোপালপুর সূতী ভিএম পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক গোলাম রায়হান বাপনকেও উপহার দেওয়া হয়েছে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মির্জা মইনুল হোসেন লিন্টুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।



সাতদিনের সেরা