kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানাতে চাইছে বিএনপি : ডেপুটি স্পিকার

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২২ ২১:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানাতে চাইছে বিএনপি : ডেপুটি স্পিকার

ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে বাংলাদেশে আর কোনো নির্বাচন হবে না। আইন সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বিলুপ্ত করা হয়েছে। তাই তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে কথা বলার আর কোনো সুযোগ নেই। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন যথা সময়ে, যথা নিয়মে অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

আজ শনিবার দুপুরে ঈশ্বরদীতে সাবেক ভূমিমন্ত্রী ও পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি শামসুর রহমান শরীফ ডিলু, প্রয়াত মহিউদ্দিন এমপিসহ প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতাদের কবর জিয়ারত ও শ্রদ্ধা নিবেদন করে তিনি এ কথা বলেন।

টুকু আরো বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা বলে রাজপথে যারা আন্দোলনের নামে দেশে বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করছেন তাদের রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য বিএনপি নেতারা বিভিন্ন ধরনের মিথ্যাচার করছে।

এরপর তিনি ঈশ্বরদীর প্রাচীনতম মৌবাড়িয়া দুর্গামন্দির ও পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন। সে সময় টুকু বলেন, বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য বিএনপি-জামায়াত নিরন্তর প্রচেষ্টা করছে। আওয়ামী লীগ আন্তর্জাতিক বিশ্বে প্রমাণ করেছে অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি এবং ধর্ম নিরপেক্ষতার দেশ বাংলাদেশ। দেশের সংবিধানে বঙ্গবন্ধু ধর্ম নিরপেক্ষতা রেখে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন।

টুকু আরো বলেন, বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট করার জন্য অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে অস্থিশীল করতে বিএনপি-জামায়াত চক্র ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এটা হতে দেওয়া যাবে না, এই ষড়যন্ত্র রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে প্রতিহত করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস, পাবনা জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আ স ম আব্দুর রহিম পাকন, ঈশ্বরদী উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নায়েব আলী বিশ্বাস, ঈশ্বরদী পৌরসভার মেয়র ইসাহক আলী মালিথা, বেড়া পৌরসভার মেয়র আশিফ সামস রঞ্জন, ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার পি এম ইমরুল কায়েস, বিএসআরআইয়ের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. কুয়াশা মাহমুদ, মৌবাড়িয়া দুর্গামন্দিরের উপদেষ্টা প্রবীণ শিক্ষাবিদ অধ্যাপক উদয় নাথ লাহিড়ী, বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা জালাল উদ্দিন তুহিন, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুনীল চক্রবর্তী, প্রয়াত ভূমিমন্ত্রীর ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা গালিবুর রহমান শরীফ প্রমুখ।

এর আগে ঈশ্বরদীতে কর্মসূচির শুরুতে প্রয়াত ভূমিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি প্রয়াত শামসুর রহমান শরীফ ডিলু, সাবেক প্রয়াত এমপি মহিউদ্দিন আহমেদ, ঈশ্বরদী আওয়ামী লীগের  প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি প্রয়াত নেতা তোজাম আলী মিয়া, ফকির মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, আব্দুর রহিম মালিথা, ইদ্রিস আলী মালিথা ও আমজাদ মন্ডলের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করে জিয়ারত করেন।

এ সময় তিনি বলেন, আমি যেদিন ডেপুটি স্পিকার নির্বাচিত হই, সেদিনই সিদ্ধান্ত নিই যে যাঁরা বঙ্গবন্ধুর সাথে থেকে তৎকালীন সময়ে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করতে ভূমিকা রেখেছিলেন তাঁদের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করব। সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ঈশ্বরদীর এসব প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারত করেন এবং ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো।



সাতদিনের সেরা