kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নৌকাডুবিতে নিহত প্রত্যেক পরিবারে বিএনপি দিল ১০ হাজার টাকা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২২ ২১:১৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নৌকাডুবিতে নিহত প্রত্যেক পরিবারে বিএনপি দিল ১০ হাজার টাকা

এ সরকারের কাছে মানুষের লাশ কোনো ব্যাপার না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। আজ শনিবার দুপুরে পঞ্চগড়ের মাড়েয়া মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে আউলিয়ার ঘাটে নৌকাডুবিতে নিহত পরিবারের সদস্যদের অর্থসহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, কে মরলে কে বাঁচল তা তাদের দেখার কথা না। তাদের তো ভোটও লাগে না।

বিজ্ঞাপন

এতগুলো মানুষ প্রাণ হারালো সরকার জাতীয়ভাবে শোক প্রকাশ করল না। সরকারের উচিত ছিল জাতীয়ভাবে শোক ঘোষণা করার জন্য। যে সরকার জনগণের ভোটই নেয় না সেই সরকার কি আর জাতীয় শোক দিবস পালন করবে। যে সরকার জনগণের মেনডেট ছাড়া ১৫ বছর ক্ষমতায় আছে সেই সরকারের জনগণের কথা চিন্তা করার সময় নাই। এই সরকারের আমলে যত মানুষ মারা গেছে তারা পঁচে গেলে দুর্গন্ধে থাকা যেত না। ১৫ বছর হলো জগদ্দল পাথরের মতো ক্ষমতায় বসে আছে। মিথ্যে মিথ্যে বলে মানুষকে প্রতারিক করে যাচ্ছে। এদেশের মানুষের প্রতি এই সরকারের কোনো দায়বদ্ধতা নাই।

তিনি আরো বলেন, আমরা কোনো মিটিং করলে তারা অনেক আইন কানুন দেখায়। অথচ এখানে হাজার হাজার মানুষের সমাগম হলো সরকার বিষয়টি তদারকি করল না এটা সরকারের ব্যর্থতা। তারা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করলে আজ এতগুলো প্রাণহানি হতো না। বিএনপি ক্ষমতায় এলে এ ঘটনায় জড়িতদের বিচারের আওতায় আনা হবে।

এ ঘটনায় আমরা স্থানীয় পরিষদের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করেছি। আমরা আমাদের সীমিত সামর্থ নিয়ে আপনাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। আপনারা যেমন আপনাদের ছেলে, বাবা, মা, ভাইসহ স্বজনদের হারিয়েছেন আমাদেরও ৪টি তাজা প্রাণ পুলিশের গুলিতে মারা গেছে। তারা আপনাদের ভোটের অধিকার, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আন্দোলন করেছিল। এবার বিএনপি আপনাদের জন্মগত ভোটের অধিকার ফেরত দেবে। সাধ্যের মধ্যে যেন নিত্য প্রয়োজনীয় কিনতে পারেন সেই নিশ্চিয়তা দেবে।

এ সময় বিএনপির পক্ষ থেকে নৌকাডুবিতে নিহত প্রতি পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আসদুল হাবিব দুলু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ফরহাদ হোসেন আজাদ, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কিমিটির আহ্বায়ক জাহিরুল ইসলাম কাঞ্চুসহ বিএনপি নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পরে বিএনপি নেতাকর্মীরা নৌকাডুবির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।  



সাতদিনের সেরা