kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০২২ । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

যৌতুকের বলি রোকসানা, স্বামী গ্রেপ্তার

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) সংবাদদাতা    

১ অক্টোবর, ২০২২ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌতুকের বলি রোকসানা, স্বামী গ্রেপ্তার

নিহত নববধূ রোকসানা ও স্বামী সাইফুল ইসলাম

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের নির্যাতনের শিকার হয়ে বিয়ের তিন মাসের মাথায় ফাতেমাতুজ জোহরা ওরফে রোকসানা (১৮) নামের এক নববধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে জামাতা সাইফুল ইসলামকে প্রধান করে সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পুলিশ গতকাল শুক্রবার রাতেই সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি শুভ রঞ্জন চাকমা।

বিজ্ঞাপন

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার পৌর এলাকার শ্রীপুর খাঁ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আলকরা ইউনিয়নের উত্তর কাইছুটি গ্রামের মো. আবুল বশরের মেয়ে রোকসানার সাথে খাঁ বাড়ির মৃত সৈয়দ আহমেদের ছেলে মো. সাইফুলের সাথে গত ১০ জুন বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই সাইফুল ও তার পরিবার যৌতুকের দাবিতে নববধূ রোকসানার ওপর বিভিন্ন সময় নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন।  

নিহতের বড় বোন রাশেদা আকতার বলেন, ‘শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সাইফুল আমার বাবার মোবাইল ফোনে কল দিয়ে বলে, রোকসানার অবস্থা খারাপ। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আমরা খবর পেয়ে দ্রুত চৌদ্দগ্রাম সরকারি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে গিয়ে দেখি রোকসানার মরদেহ পড়ে আছে। খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। ’

নিহত রোকসানার মা হোসনে আরা বেগম অভিযোগ করে বলেন, ‘বিয়ের পরদিন থেকে যৌতুকের জন্য মেয়ের ওপর নির্যাতন শুরু হয়। এরই জের ধরে আমার মেয়ের হাতের মেহেদির দাগ মুছে যাওয়ার আগেই শ্বশুরবাড়ির লোকজন পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেছে। ’

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।  গৃহবধূর স্বামী সাইফুলকে রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।



সাতদিনের সেরা