kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ নভেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কেরানীগঞ্জে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি : দেড় মাসেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ!

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২২ ১১:২৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



কেরানীগঞ্জে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি : দেড় মাসেও গ্রেপ্তার হয়নি কেউ!

গত ১৭ আগষ্ট বুধবার ঢাকার দক্ষীণ কেরানীগঞ্জের আব্দল্লাহপুর বাজার এলাকায় নিউ আল আমিন জুয়েলার্সে প্রকাশ্য দিবালোকে বোমা ফাটিয়ে ডাকাতির হয়। ডাকাতরা দিন দুপুরে দোকানের মালিক স্বপন মন্ডলের পায়ে গুলি করে ২০০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় দোকানের মালিক স্বপন মন্ডলের ছোট ভাই বিপ্লব মন্ডল বাদী হয়ে ঐ দিন রাত ৯.৩০ টায় অজ্ঞাত ৬ জনকে আসামি করে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  

মামলার দেড় মাস পার হয়ে গেলেও ডাকাতি হওয়া স্বর্ণালংকার উদ্ধার এবং জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

এ নিয়ে হতাশার মধ্যে রয়েছে আব্দুল্লাপুর এলাকার স্বর্ণ ব্যবসায়ীসহ অন্যান্য ব্যবসায়ীরা।

মামলার বাদী ও স্বপন মন্ডলের ছোট ভাই বিপ্লব মন্ডল জানান, আমরা খুব মানসিক অশান্তির মধ্যে আছি।   একদিকে ভাই অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অন্য দিকে দেড় মাস পার হয়ে গেছে কিন্তু এ ঘটনায় পুলিশ এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার বা আমাদের দোকানের লুণ্ঠিত মালামাল ও উদ্ধার করতে পারেনি।

এদিকে আব্দুল্লাহপুর এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ডাকাতির ঘটনার রেষ এখোনো কাটেনি এলাকাবাসীর মধ্যে। কম বেশি সব দোকানীর মুখেই এখোনো ডাকাতির ঘটনার আলোচনা চলছে। বিশেষ করে স্বর্ণ রব্যবসায়ীরা এখোনো আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। দেড় মাস পার হয়ে গেলেও ডাকাতির ঘটনার কোনো গ্রেপ্তার বা মালামাল উদ্ধার না হওয়ায় হতাশার মধ্যে রয়েছেন তারা। অধিকাংশ ব্যবসায়ী এক সাটার বন্ধ করে দোকান খুলছেন।

আলামীন জুয়েলার্সের পাশেই অবস্থিত আবির জুয়েলার্স, আবির জুয়েলার্সের মালিক ঝন্টু ঘোষ জানান, ঘটনার দিন আমি আমার মাকে নিয়ে হাসপাতালে ছিলাম। দোকানে  আমার ভাতিজা চন্দন একা ছিল । বোমার শব্দ পেয়ে ও উকি মেওে যখন দেখে এই অবস্থা তখন ও ভিতর থেকে সাথে সাথে সাটার ফেলে দেয়। এবং কান্না করতে করতে আমাকে কল দেয়। আমি ওর কল পেয়ে হাসপাতাল থেকে দ্রুত ঘটনা স্থলে চলে আসি ও এসে এই অবস্থা দেখতে পাই।  

তিনি আরো জানান, আমরা এখোনো আতঙ্কের মধ্যে এবং নিরাপত্তা হীনতার মাঝে রয়েছি। আজকে স্বপনের দোকানে ডাকাতি হয়েছে , কালকে যে আমার দোকানে হবে না, তার তো কোন গ্যারান্টি নাই। পুলিশ যদি দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারে তাহলে হয়তো আমরা কিছুটা স্বস্থি পেতাম।

আব্দল্লাহপুর বাজার স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক ভোলা কুন্ড বলেন, আমাদেও আব্দল্লাহপুর বাজার স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতিতে ৩০ জন সদস্য রয়েছে। এ ঘটনায় আমরা সবাই চিন্তিত ও আতঙ্কিত। আহত স্বপন, আমাদের স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি। সভাপতির দোকানেই এই ঘটনা ঘটায় আমরা ভেঙে পড়েছি। কারণ ঐ দিনের ঘটনায় স্পষ্ট পরিষ্কার আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছি। অতি স্বত্তর ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী বলেন, দিনে দুপুরে ডাকাতির ঘটনায় বোঝা যাচ্ছে আমরা ব্যবসায়ীরা কতটা নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে আছি। ঘটনার দু'একদিন পুলিশের তৎপরতা দেখা গেলেও এখন আর তাদের দেখা যয় না। প্রশাসন  ঠাণ্ডা হয়ে গেলেও  আমাদের ব্যবসায়ীদের মাঝে এখনো হতাশা ও আতঙ্ক কাটেনি। আমরা এখনো দোকানের এক সাটার বন্ধ করে দোকান খুলছি।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহজামান বলেন, ডাকাতির ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের আমারা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হব।

ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল) শাহবুদ্দীন কবির জানান, ডাকাতির ঘটনায় মালামাল উদ্ধারে এবং ডাকাতদেও গ্রেপ্তারে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে আমরা ঘটনাস্থল কয়েকবার পরিদর্শন করেছি। বেশ কিছু জায়গায় অভিযানও পরিচালনা করেছি। অনেক তাড়াতাড়িই আসামিরা গ্রেপ্তার হবে। অন্যান্য ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তাদের ভয়ের কোনো কারণ নেই, আমরা টহল আগের চেয়ে দ্বিগুন বাড়িয়ে দিয়েছি।



সাতদিনের সেরা