kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন এখন কফিনে বন্দি

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১ অক্টোবর, ২০২২ ০৮:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন এখন কফিনে বন্দি

একুয়ান ইসলাম

জমিজমা সব বিক্রি করেও ছেলের জীবন রক্ষা করতে পারলেন না কৃষক বাবা। দালালের মাধ্যমে স্বপ্নের দেশ ইতালি যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তরুণ একুয়ান ইসলামের (১৯)। গতকাল সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের শ্রীধরপাশা গ্রামে একুয়ানের মরদেহে পৌঁছলে এক হৃদয়বিদারক পরিবেশ তৈরি হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বছরের মার্চ মাসে গ্রামের দালাল আলী হোসেনের মাধ্যমে চার লাখ টাকায় লিবিয়া যান কৃষক তরিকুল ইসলামের ছেলে একুয়ান।

বিজ্ঞাপন

সেখানে পৌঁছার পর দালাল চক্র তাঁকে আটক করে অমানবিক নির্যাতন চালায়। তাঁকে সেখান থেকে রক্ষা করতে ১০ লাখ টাকা দেওয়া হয়। পরে আরো পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে তাঁকে ইতালি পাঠানোর চুক্তি হয়। গত ১৬ জুন অবৈধভাবে সাগরপথে ইতালি যাওয়ার সময় মৃত্যু হয় একুয়ানের। এ খবরে আলী হোসেনের পরিবার গাঢাকা দেয়। গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় তাঁর লাশ দেশে আসে। গতকাল বিকেলে একুয়ানের লাশ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্তের পর গ্রামের বাড়িতে আসে।
একুয়ানের বাবা বলেন, ‘সংসারে সচ্ছলতা আনতে জায়গাজমি সব বিক্রি করে তিন কিস্তিতে দালাল আলী হোসেনের বাবা আবুল মিয়া ও মা আসমা বেগমের কাছে ১৯ লাখ টাকা দিই। আমার ছেলেকে অমানবিক নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। আমাদের কাছে সাক্ষ্য-প্রমাণ রয়েছে। আমি আবুল ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা করব। ’



সাতদিনের সেরা