kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

অটোরিকশা চোর চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

বিনোদন ডেস্ক   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২৩:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অটোরিকশা চোর চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

গ্রেপ্তারকৃত মোহাম্মদ সোহাগ ও মোহাম্মদ বাবলু

রাজধানীর কেরানীগঞ্জে অভিযান চালিয়ে অটোরিকশা চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। তাঁদের কাছ থেকে চুরি হওয়া তিনটি অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে। বিকাল পাঁচটায় কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর লিখিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

গ্রেপ্তারকৃত দুই জন হলেন দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর থানার মৃত আ. রউফের ছেলে মোহাম্মদ সোহাগ (২৪) ও ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ থানার মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে মোহাম্মদ বাবলু (৪৫)।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর জানান, গত ০৬ জুলাই গভীর রাতে কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন আমিরাবাগের বাসিন্দা মো. রাব্বি আকাশের মালিকানাধীন রিক্সার গ্যারেজ হতে ৩টি মিশুক অটোরিকশা ও আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি চুরি হয়ে যায়। পরে চুরির ঘটনায় মালিক রাব্বি আকাশের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা রুজু হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরো জানান, মামলা রুজু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ দ্রুত সংঘবদ্ধ এই মিশুক রিক্সা চোরদের গ্রেপ্তার ও চোরাই মিশুক রিকশা উদ্ধারের জন্য জোর তৎপরতা শুরু করেন। মামলার ঘটনাস্থল ও আশেপাশের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহপূর্বক পর্যালোচনা করে আসামীদের গতিপথ ও মিশুক অটোরিকশা শনাক্ত করেন। পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকার আশুলিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মিশুক অটোরিকশা চোর চক্রের অন্যতম সদস্য সোহাগকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর আসামি সোহাগকে বিজ্ঞ আদালতের আদেশে রিমান্ডে আনা হয়।

আসামি সোহাগকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে রিকশা চুরির অপরাধ স্বীকার করে এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়। সোহাগের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ২৯ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার অন্যতম আসামি বাবলুকে গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর থানাধীন বাগবাড়ী এলাকা হতে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চুরি যাওয়া তিনটি মিশুক অটোরিকশা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে অভিযান চলমান রয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।



সাতদিনের সেরা