kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৯ নভেম্বর ২০২২ । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বউ-শাশুড়ি দ্বন্দ্বে আহত নারীর মৃত্যু

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২২:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বউ-শাশুড়ি দ্বন্দ্বে আহত নারীর মৃত্যু

নেত্রকোনার মদনে বউ-শাশুড়ি দ্বন্দ্বের জেরে আহত মিনারা আক্তার (৫০) মারা গেছেন। আজ সোমবার সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মিনারা আক্তার রুদ্রশ্রী গ্রামের ইব্রাহিম মিয়ার স্ত্রী।   

এছাড়া এ ঘটনায় গতকাল রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে রুদ্রশ্রী গ্রামের মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে শফিকুল ইসলাম (৬০) নিহত হন।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া আরো ৬ জন আহত হন।
 
এ ঘটনায় রবিবার রাতে শরূফা আক্তার (৪৫) নামের একজন নারীকে আটক করেছে মদন থানার পুলিশ। শরূফা আক্তার ফতেপুর মড়লপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের স্ত্রী।  

আহত ইব্রাহীম (৮০), মোবারক হোসেন (২৫) মাসুম মিয়া (১২)  আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। বাকি আহত জুনাঈদ (১৫), রিনা আক্তার (৩৮) ও কাদির মিয়াকে (১৩) মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রাখা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রুদ্রশ্রী গ্রামের এলাল উদ্দিনের ছেলে মোবারক হোসেন তিন বছর আগে ফতেপুর মড়লপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে মুন্না আক্তারকে বিয়ে করেন। গত রবিবার সন্ধ্যায় মুন্না তার শাশুড়ি রিনা আক্তারের সাথে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ঝগড়া লেগে যান।

পরে মুন্না বাবার বাড়িতে গিয়ে শাশুড়ির সাথে ঝগড়ার বিষয়টি তার পরিবারকে জানান। তার কথা শুনে বাবা আব্দুল মান্নান লোকজন নিয়ে ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে রাত আনুমানিক ১০টার দিকে মেয়ের জামাই মোবারক হোসেনের বাড়ি রুদশ্রী গ্রামে হামলা চালান। এ ঘটনা সামলাতে আসলে প্রতিবেশী মৌলভী শফিকুল ইসলামকে ছুরিকাঘাত করা হয়।

এ হামলায় মিনারা আক্তারসহ আরো ৭ জন আহত হয়। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শফিকুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত চার জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিনারা আক্তার মারা যান।   

মদন থানার ওসি মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম বলেন, 'পারিবারিক কলহের জেরে ছুরিকাঘাতে শফিকুল ইসলাম নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় আহত মিনারা আক্তার আজ সন্ধ্যায় মারা গেছেন।   জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শরূফা আক্তার নামের এক নারীকে আটক করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। '



সাতদিনের সেরা