kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মৃত্যুর ৭ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো ব্যবসায়ীর লাশ

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৮:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৃত্যুর ৭ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো ব্যবসায়ীর লাশ

যশোরের চৌগাছায় মৃত্যুর সাত মাস পর এক ব্যবসায়ীর লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে যশোর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) গতকাল সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে উপজেলার দেবিপুর গ্রাম থেকে নিহত ব্যবসায়ী বিপ্লব হোসেনের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠান।

বিগত পহেলা মার্চ রাত আনুমানিক ৮টার দিকে চৌগাছা-কোটচাঁদপুর সড়কে মুক্তদাহ মোড়ের অদূরে পাকা সড়কের উপর থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় ব্যবসায়ী বিপ্লব হোসেনকে স্থানীয়রা উদ্ধার চৌগাছা হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের পাশেই পড়ে ছিল তার ব্যবহৃত মটরসাইকেল।

বিজ্ঞাপন

নিহত বিপ্লব হোসেন দেবিপুর গ্রামের চান্দু মিয়ার ছেলে এবং পেশায় সার কীটনাশক ব্যবসায়ী। সেই সময়ে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি মারা গেছেন বলে সর্বত্র প্রচার হয়। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ায় তাকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরের দিন দাফন করা হয়। এ ঘটনার কিছু দিন যেতে না যেতেই দেবিপুরসহ অত্র এলাকায় প্রচার হয় ব্যবসায়ী বিপ্লব হোসন সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাননি। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। একপর্যায়ে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নিহতের স্ত্রী নাসরিন আক্তার গত ১৬ মে ৫ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করেন।

মহামান্য আদালত এই মামলার তদন্ত দায়িত্ব প্রদান করেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই)। পিবিআই স্পর্শকাতর মামলাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত শুরু করেন।

এরই মধ্যে মামলার আসামিরা নিহত ব্যবসায়ীর স্ত্রী নাসরিন আক্তারসহ পরিবারের লোকজনকে মামলা তুলে নিতে নানাভাবে হুমকি-ধমকি দিতে থাকে। নাসরিন জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে চৌগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরী করার পাশাপাশি গত ২৭ জুলাই যশোর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন।

পিবিআই দীর্ঘ তদন্ত ও আদালতের আদেশ পেয়ে গতকাল দীর্ঘ ৭ মাস পর নিহতের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোরে পাঠায়।



সাতদিনের সেরা