kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার দুই গার্মেন্টকর্মী, আটক ৪

পাবনা প্রতিনিধি    

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৬:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার দুই গার্মেন্টকর্মী, আটক ৪

পাবনার ঈশ্বরদীতে দুই গার্মেন্টকর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। গতকাল শনিবার রাতে উপজেলার মুলাডুলি শেখপাড়া এলাকায় কৃষি ফার্মের রাস্তার পাশে আখক্ষেতে এ ঘটনা ঘটে। ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার কালের কণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃতরা হলেন ঈশ্বরদীর লক্ষ্মীকোলা গ্রামের বাকী বিল্লাহর ছেলে আল আমিন (২৫), নায়েব আলী সরদারের ছেলে মহিদুল সরদার (৩৫), নাটোরের বড়াইগ্রাম থানার গোপালপুরের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে আব্দুর রশীদ (৩৫) ও বড়াইগ্রাম থানার রাজাপুরের চাঁন মিঞার ছেলে জাবেদ (৩৫)।

বিজ্ঞাপন

রবিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, এক নারী গার্মেন্টকর্মীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে অভিযুক্ত আল আমিনের। সম্পর্কের জের ধরে ঈশ্বরদীতে দেখা করার জন্য আসতে বলেন তিনি। তার সঙ্গে দেখা করার জন্য ওই নারী তার এক বান্ধবীকে নিয়ে শনিবার বিকেলে ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া যান। এ সময় আল আমিন বন্ধুদের সহযোগিতায় ঘোরাঘুরির পর রাত ৮টার ওই দুই গার্মেন্টকর্মীকে মুলাডুলির শেখপাড়া এলাকার একটি আখক্ষেতে নিয়ে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করেন। এ সময় ভুক্তভোগীর চিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাদের উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পুলিশ রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে তাদের থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।   

ওসি অরবিন্দ সরকার জানান, ভিকটিমদের বক্তব্য শুনে রাতেই কুষ্টিয়া ও বড়াইগ্রাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে চারজনকে আটক করা হয়। অপর আসামিদের ধরতে পুলিশি অভিযান চলছে। এ ঘটনায় থানায় আইনি প্রক্রিয়াসহ মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



সাতদিনের সেরা