kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১২ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৩০ সফর ১৪৪৪

সাপটি মারার কিছুক্ষণ পর মারা যায় শিশু হাসান, দাবি পরিবারের

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৮:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাপটি মারার কিছুক্ষণ পর মারা যায় শিশু হাসান, দাবি পরিবারের

রাতে মা-বাবার সাথে ঘুমিয়ে ছিল চার বছরের শিশু হাসান। হঠাৎ গভীর রাতে ঘুম থেকে কেঁদে ওঠে শিশুটি। এ সময় তার বাবা তাকে নিয়ে ঘর থেকে বের হওয়ার সময় দরজার সামনে বাদ সাধে একটি সাপ। এ সময় সাপটিকে মারা হলে সাথে সাথে শিশুটিও ছটফট করে অচেতন হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গতকাল বুধবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার বীরবেতাগৈর ইউনিয়নের বীরখামাটখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

শিশুটির বাবা আব্দুল আউয়াল জানান, রাত প্রায় ২টার দিকে পুত্র হাসান (৪) হঠাৎ ঘুম থেকে কেঁদে ওঠে। কিছুতেই তার কান্না থামানো যায়নি। এ অবস্থায় দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেওয়ার সময় ঘরের দরজার সামনে একটি সাপ দেখা যায়। তখন ওই সাপটিকে সরানোর চেষ্টা করা হলেও কোনেমতেই সাপটি সরেনি। এ অবস্থায় বড় ভাই উজ্জল মিয়াকে ডেকে এনে সাপটিকে পিটিয়ে মারা হয়। আর তখনই নিজের কোলে থাকা শিশুটি ছটফট করে কান্নার মাত্রা বাড়িয়ে দিয়ে অচেতন হয়ে যায়। শেষরাতে নান্দাইল সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে নান্দাইল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. শরিফুল ইসলাম জানান, তিনি ওই রাতে জরুরি বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন। শিশুটিকে মৃতই আনা হয়েছিল। সাপে কামড়ে তার মৃত্যু হয়নি। অন্য কোনো কারণ থাকতে পারে।  



সাতদিনের সেরা