kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০২২ । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

চোখ-জুড়ানো কালোমাথা হলদেবউ

শাহ ফখরুজ্জামান, হবিগঞ্জ   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চোখ-জুড়ানো কালোমাথা হলদেবউ

কালোমাথা হলদেবউ। ছবি : ডা. সাইফুল্লাহ আল আমিন সুমন

হলুদবরণ পাখি নিয়ে গ্রামবাংলায় গীত আর গল্প প্রচুর। পাখির গড়পড়তা রঙের চেয়ে আলাদা বলে এই পাখি নিয়ে সবার কৌতূহল বেশি। তেমন একটি পাখি কালোমাথা হলদেবউ। এটি কালোমাথা বেনেবউ নামেও পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

গ্রামীণ পরিবেশ ও প্রকৃতিতে একসময় কালোমাথা হলদেবউ অনেক ছিল। এখন আগের মতো আর দেখা যায় না। গ্রামীণ সমাজে প্রচলিত আছে, কোনো বাড়িতে গিয়ে এই পাখি ডাকলে সে বাড়িতে ইষ্টিকুটুমের আগমন ঘটে। এ জন্য পাখিটি কুটুমপাখি বলেও পরিচিত।

হলদেবউ সচরাচর দেখা না গেলেও পাখির অভয়ারণ্য বলে পরিচিত হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে দেখা মেলে। সেখান থেকে এই পাখির একটি ছবি তুলেছেন শখের ছবিয়ালের অ্যাডমিন ডা. সাইফুল্লাহ আল আমিন সুমন। সম্প্রতি তিনি সাতছড়িতে বনের গভীরে গিয়ে ছবিটি  তোলেন।

ডা. সাইফুল্লাহ আল আমিন সুমন বলেন, সুন্দর এই পাখিটি বেশ দুর্লভ। আকার অনেকটা শালিকের মতো। সারা শরীরে উজ্জ্বল হলদে রঙের পালক। মাথা, পাখা ও লেজের মাঝখানে কালো। চোখ আর ঠোঁট লাল। স্ত্রী পাখিটি অনুজ্জ্বল। এরা মধুর কণ্ঠে ডাকে।

চঞ্চল স্বভাবের পাখিটি গাছে গাছে উড়ে বেড়ায়। ফল, ফুলের মধু ও পোকামাকড় খেয়ে থাকে। এপ্রিল-মে এদের প্রজননকাল। স্ত্রী পাখিটি দুই থেকে পাঁচটি ডিম পাড়ে। ১২ থেকে ১৫ দিন ডিমে তা দেওয়ার পর ছানা ফোটে।    বৃক্ষচারী পাখিটির বৈজ্ঞানিক নাম Oriolus xanthornusএবং ইংরেজি নাম Black-hooded Oriole।   

বাংলাদেশ-ভারত ছাড়াও দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে এর দেখা মেলে। একা বা জোড়া হিসেবে এরা গাছে গাছে বিচরণ করে। গাছের ওপর থেকে এরা বাঁশির মতো সুরে ‘হোয়াই-ইউ’ বা ‘হোয়াই-ইউ-ইউ’ করে ডাকে। কর্কশভাবে ‘কোয়াক’ করেও ডাকে, যা শুনতে অনেকটা হাঁড়িচাঁচার ডাকের মতো শোনায়।

সুমন বলেন, ‘পাতাযুক্ত গাছে অবস্থান করে বলে এই পাখির ছবি তুলতে বেশ কষ্ট করতে হয়। আমি সৌভাগ্যবশত পাতাছাড়া একটি গাছে পাখিটির ছবি ধারণ করি। সাতছড়ি ছাড়াও রেমা-কালেঙ্গা জাতীয় উদ্যানেও অনেকে এই পাখি দেখেছে। ওরা যেসব খাবার খায়, সেই ফলপাকড় গাছের এখন যথেষ্ট অভাব। এই প্রজাতিটি এখন হুমকির মুখে বলা যায়। ’



সাতদিনের সেরা