kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সড়কে নিয়মিত ডাকাতি ও ছিনতাই, প্রতিকার চান এলাকাবাসী

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি   

১৯ আগস্ট, ২০২২ ১৮:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সড়কে নিয়মিত ডাকাতি ও ছিনতাই, প্রতিকার চান এলাকাবাসী

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার মনোহরপুর-খয়েরহুদা গ্রামীণ সড়কে রাতের আঁধারে প্রতিনিয়ত ডাকাতি-ছিনতাইয়ের কবল থেকে রেহাই পেতে মানববন্ধন করেছেন এলাকার ভুক্তভোগী মানুষ। শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে মনোহরপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, উপজেলার কেডিকে ইউনিয়নের খয়েরহুদা-কাশীপুর ও মনোহরপুর গ্রামের একাংশের চলাচলের একমাত্র রাস্তায় বছরের পর বছর ধরে ছিনতাই ও ডাকাতি হয়ে আসছে। ডাকাত ও ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে নগদ টাকা, মোটরসাইকেল, বাইসাইকেল, মোবাইল ফোন, অলংকার হারিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

বিজ্ঞাপন

এ এলাকার ছোটবড় প্রায় অর্ধশত ব্যবসায়ী জীবননগর উপজেলা শহরে ব্যবসা করেন। ব্যবসায়ীরা সন্ধ্যার পর বাড়ি ফেরার পথে প্রায়ই মনোহরপুর-খয়েরহুদা সড়কে ডাকাতির কবলে পড়েন। দীর্ঘদিন ধরে এসব ডাকাতি ও ছিনতাই হয়ে আসলেও পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি। এতে ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগীরা নিরাপদে চলাচলের দাবিতে মানববন্ধন করেন।

এ সময় বক্তারা জানান, এ সড়কে চলাচলকারী ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ নির্বিঘ্নে বাড়ী ফিরতে পারেনা। পথচারীদের আপনজন উদ্বিগ্ন থাকেন। গত ১৫ আগস্ট রাতে জীবননগর শহরের হার্ডওয়্যার ব্যবসায়ী খয়েরহুদা গ্রামের আব্দুস শুকুরের ছেলে কৌশিক আহমেদ জনি ডাকাতের কবলে পড়েন। ডাকাতরা তাকে পিঠমোড়া করে, চোখ বেঁধে মাঠে গাছের সাথে বেঁধে রাখে। এ সময় তার কাছে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এমন ঘটনার মুখে পড়েছেন এলাকার বহু মানুষ। মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা মনোহরপুর-খয়েরহুদা সড়কে একটি পুলিশ বক্স নির্মাণ করে নিয়মিত পুলিশ প্রহরার মাধ্যমে নিরাপদ সড়কের জোর দাবি করেন।



সাতদিনের সেরা