kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১২ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৩০ সফর ১৪৪৪

মেহেদীর রং শুকানোর আগেই নববধূর আত্মহত্যা!

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৯ আগস্ট, ২০২২ ০১:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেহেদীর রং শুকানোর আগেই নববধূর আত্মহত্যা!

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন নববধু রুনা বেগম।  মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামের রুনা বেগমের বিয়ে হয়েছিল একই ইউনিয়নের নঈনারপার গ্রামের আজির মিয়ার ছেলে দিন মজুর শরিফ মিয়ার সঙ্গে।  বুধবার রাত ১০টায় নিজ কক্ষে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় রুনার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

কমলগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, নববধূ রুনার পেটের ব্যথার কারণে বুধবার দিনে মৌলভীবাজার জেলা সদরে গিয়ে ডাক্তার দেখিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাম করে সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরেন।

বিজ্ঞাপন

তার মা তাকে ডাক্তার দেখিয়ে স্বামীর বাড়ি রেখে নিজ বাড়িতে ফিরে যান। এদিকে স্বামী শরিফ মিয়াও বাড়ি থেকে বাজারে চলে যান। রাত ১০ টায় তার শ্বাশুড়ি গিয়ে দেখেন নববধূর ঘরের দরজা বন্ধ। অনেক ডাকাডাকির পর সে দরজা না খোলায় পিছনের বেড়ার ফাঁক দিয়ে দেখতে পান সে গলায় ফাঁস দিয়ে বৈদ্যুতিক পাখার সাথে ঝুলে রয়েছে।

বিষয়টি কমলগঞ্জ থানাকে অবহিত করলে থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে দরজা ভেঙ্গে নববধূর লাশ নামিয়ে ময়না তদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার সকালে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন যে, বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়না তদন্ত শেষে লাশটি তার পরিজনদের কাছে হস্তান্তর করেছেন। ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা