kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

কুষ্টিয়ায় আ. লীগের দু’পক্ষে গোলাগুলি, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া    

১৮ আগস্ট, ২০২২ ২২:৩২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কুষ্টিয়ায় আ. লীগের দু’পক্ষে গোলাগুলি, সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের খানপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু'পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনায় উভয় পক্ষের দু'জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ সময় বেশকিছু ঘরবাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। গত বুধবার মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, ওই ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হায়দার আলী (৫৫) ও ইউনিয়নের দেবীনগর গ্রামের নাদের শেখের ছেলে আব্দুর রশিদ শেখ (৪৫)।

বিজ্ঞাপন

তাদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে থানায় একপক্ষ মামলা করেছে। এতে ওসমানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ গ্রুপের সঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। এমপি গ্রুপের নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল আক্তার ও স্থানীয় মেম্বার হায়দার আলী। আর খান গ্রুপের নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তারিক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান। বিরোধের জেরে গত বুধবার রাত ১২ টার দিকে ইউনিয়নের খানপুরে দু'পক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া, ভাঙচুর ও গুলি বিনিময় হয়। এ সময় এমপি গ্রুপের সমর্থক ও ১ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার হায়দার আলী ও খান গ্রুপের সমর্থক রশিদ শেখ গুলিবিদ্ধ হন। উভয়পক্ষের বেশ কিছু ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়।

এমপি গ্রুপের নেতাকর্মীরা জানান, সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে জানিপুর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে বিক্ষোভ সমাবেশ ছিল। প্রথমে তাদের সমর্থকদের সমাবেশে আসতে বাধা দেয় প্রতিপক্ষ। পরে সমাবেশ শেষে বাড়ি ফেরার পথে তাদের ওপর হামলা, গুলিবর্ষণ ও ঘরবাড়িতে ভাঙচুর করা হয়।

খান গ্রুপের নেতাকর্মীরা জানান, আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোকজন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা ও গুলিবর্ষণ করে। এতে চেয়ারম্যানের বাড়ির কেয়ারটেকার গুলিবিদ্ধ হন।

খোকসা থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময় হয়েছে। উভয় পক্ষের দুজন আহত হয়েছেন। এমপি গ্রুপ মামলা করেছেন। মামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা