kalerkantho

শুক্রবার । ৭ অক্টোবর ২০২২ । ২২ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মহরমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা শুরু হয়ে গেছে : ডিআইজি

বরগুনা প্রতিনিধি   

১৭ আগস্ট, ২০২২ ১৯:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মহরমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা শুরু হয়ে গেছে : ডিআইজি

বরগুনায় ছাত্রলীগের শোকযাত্রায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষকে নিবৃত্ত করতে পুলিশের লাঠিপেটার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বরগুনায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এ ঘটনার তিন দিন পর আজ বিকেল ৩টায় বরিশাল রেঞ্জের (ডিআইজ) এস এম আক্তারুজ্জামান বরগুনা সার্কিট হাউস পরিদর্শন করেন।

ঘটনায় বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহরম আলীকে তাঁর কর্মস্থল থেকে বদলির পর আরো পাঁচ পুলিশ সদস্যকে বরগুনা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।  

ডিআইজি এস এম আক্তারুজ্জামান বলেন, ‘১৫ আগস্ট বরগুনায় একটি অপ্রত্যাশিত একটি ঘটনা ঘটেছে।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনার পরই আমি বিষয়টি আইজি স্যারকে জানিয়েছি। স্যার এ ঘটনাকে অপ্রত্যাশিত বলেছেন। অনেকেই বলছে, এ ঘটনায় বাড়াবাড়ি হয়েছে। আমরা একটি তদন্ত কমিটি করে দিয়েছে। এই কমিটিকে তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি, আগামীকালের মধ্যে এই তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হবে। আপনারা যেটা প্রত্যাশা করছেন সেটা হবে মনে হয়। তবে বিষয়টি তদন্তে পরিষ্কার হবে। ’ 

তিনি আরো বলেন, ‘অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহরম আলীকে চট্টগ্রামে বদলি করা হয়েছে। যখন কোনো কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় তাকে দায়িত্ব দিতে চাই না। এই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। অর্থ আকাশে মেঘ জমা হয়েছে দেখা যাচ্ছে। তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে যেটা নিজের ব্যাপার, যেমন আমি ব্যবস্থা নিতে পারলে নেব, এসপি নিতে পারলে নেবে এবং পুলিশ হেডকোয়ার্টার নেবে। আর যেটা মন্ত্রণলায় ব্যবস্থা নেওয়ার সেটা নেবে। আমি আবারও বলছি, এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার হবে। ’ 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, বরগুনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শওকত হাচানুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির, পৌর মেয়র কামরুল আহসান মহারাজ প্রমুখ।  

গত সোমবার বরগুনায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জেলা ছাত্রলীগের শোক মিছিলে আরেকটি পক্ষ ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে হামলা চালায়। জেলা শিল্পকলা একাডেমির সামনে এ ঘটনার সময় ইটপাটকেলে পুলিশের গাড়ির কাচ ভেঙে যায়। এ সময় পুলিশ ছাত্রলীগের ওই পক্ষকে নিবৃত্ত করতে বেধড়ক লাঠিপেটা করে। বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর সামনেই পুলিশের লাঠিপেটার ঘটনা ঘটে। এ সময় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু ও কর্তব্যরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহরম আলীর মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। এ ঘটনা তদন্তে সোমবার রাতেই পুলিশের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।



সাতদিনের সেরা