kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বনলতা এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন বিকল, সব ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি।   

৯ আগস্ট, ২০২২ ১৯:৪২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বনলতা এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন বিকল, সব ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

জয়দেবপুর-বঙ্গবন্ধু সেতু রেল সড়কের মির্জাপুরে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় সকল ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে।

জয়দেবপুর-বঙ্গবন্ধু সেতু রেল সড়কের মির্জাপুরে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় সব ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে এ উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের কলিমাজানি নামক এলাকায় ট্রেনটির ইঞ্জিন বিকল হয়। এর পর থেকে বিকেল সোয়া ৫টা পর্যন্ত এই রেল সড়কে সব ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে।

ঢাকা কমিউটার (ভাইভ ডাউন) ট্রেনের ইঞ্জিন দিয়ে ধাক্কিয়ে বিকেল ৪টা ৩৭ মিনিটে বিকল ট্রেনটি মির্জাপুর স্টেশনের লোপ লেনে নিয়ে আসা হয়।

বিজ্ঞাপন

সোয়া ৫টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি এখনো মির্জাপুর স্টেশনের লোপ লেনে আটকা আছে।  

ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় এই রেল সড়কে দুই ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে। এ কারণে কলকাতা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী ট্রেনটি মির্জাপুর স্টেশনে, ঢাকা কমিউটার (ভাইভ ডাউন) ও সিল্কসিটি এক্সপ্রেস বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেল স্টেশনে, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস টাঙ্গাইল, চিত্রা এক্সপ্রেস ও দ্রুতযান এক্সপ্রেস যমুনা সেতু পূর্বপার রেল স্টেশনে থেমে থাকে। কলকাতা  থেকে আসা ট্রেনটি ১ ঘণ্টা আট মিনিট পর বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বিকেল সোয়া ৫টায় কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ও সাড়ে ৫টায় চিত্রা এক্সপ্রেস মির্জাপুর স্টেশন ছেড়ে যায়।  

ট্রেনের যাত্রী অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আসাদুজ্জামান জানান, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেলস্টেশন পার হওয়ার পর ইঞ্জিনের বিকট শব্দ শোনা যায়। এর কিছুক্ষণ পর ট্রেন থেমে যায়। প্রায় দেড় ঘণ্টা পর অন্য একটি ট্রেনের ইঞ্জিন পেছন থেকে ধাক্কিয়ে মির্জাপুরে আনে। এখনো অপেক্ষা করছি।

ট্রেনের যাত্রী আশরাফুল ইসলাম, নবাব, সালাম ও মাকিব হোসেন জানান, বিকেল সোয়া ৩টা থেকে আটকা আছি। এর পরও সিল্কসিটি ও দ্রুত যান মির্জাপুর স্টেশন পার হওয়ার পর বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি মির্জাপুর স্টেশন ছেড়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে। আমাদের কষ্টের কথা কেউ চিন্তা করে না। যার যার ইচ্ছামতো কাজ করছে।

ট্রেনের লোকো মাস্টার (চালক) সাইফুল ইসলাম জানান, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি রেলস্টেশন পার হওয়ার পর ইঞ্জিন আস্তে আস্তে বন্ধ হয়ে গেল। এরপর পেছন থেকে একটি ইঞ্জিন এসে বনলতাকে মির্জাপুরে নিয়ে আসে।

মির্জাপুর রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. কামরুল হাসান জানান, কলিমাজানি নামক স্থানে বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় এই রেল সড়কে প্রায় দুই ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে। তবে সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনটি মির্জাপুর স্টেশন ছেড়ে যাওয়ার পর বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেন ছেড়ে যাবে বলে তিনি জানান।



সাতদিনের সেরা