kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১০ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৮ সফর ১৪৪৪

ভাতের পাতিলে চেতনানাশক স্প্রে, ৬ সদস্যকে অচেতন করে চুরি

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৫ আগস্ট, ২০২২ ১৭:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাতের পাতিলে চেতনানাশক স্প্রে, ৬ সদস্যকে অচেতন করে চুরি

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে খাবারের সাথে চেতনানাশক স্প্রে দিয়ে নারী-শিশুসহ পরিবারের ছয় সদস্যকে অচেতন করে গ্রিল কেটে চুরির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে পৌর শহরের পশু হাসপাতাল এলাকার টিচার্স রোডে এ ঘটনা ঘটে। আজ শুক্রবার সকালে খোঁজ পেয়ে প্রতিবেশীরা সবাইকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। খবর পেয়ে গফরগাঁও থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন

জানা যায়, জনৈক ঠিকাদার আক্রাম হোসেন পৌর শহরের পশু হাসপাতাল এলাকার টিচার্স রোডের হাসান মঞ্জিলের নিচ তলার একটি ফ্ল্যাটে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করেন। আক্রাম হোসেনের স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভাত রান্না করে রান্নাঘরের জানালা খোলা রেখে পাশের ঘরে যান। এ সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা জানালা দিয়ে ভাতের হাড়িতে চেতনানাশক স্প্রে করে দেয়। রাতে সেই ভাত খেয়ে পরিবারের ছয় সদস্য অজ্ঞান হয়ে পড়েন। রাত আনুমানিক ৩টা থেকে সাড়ে ৩টার দিকে দূর্বৃত্তরা বারান্দার গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে শয়নকক্ষের ওয়ারড্রপ, আলমিরা তছনছ করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকারসহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যায়।

সকালে প্রতিবেশীরা খোঁজ পেয়ে আক্রাম হোসেন (৪০), তার স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার (৩২), মেয়ে ইকরা (১১), ছেলে রাইয়ান (৮), রোসান (৫) ও তাদের ৬ মাস বয়সী কন্যাশিশু ইসরাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। প্রতিবেশীদের ধারণা, শিশু ইসরা মায়ের বুকের দুধ খেয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়েছে। খবর পেয়ে গফরগাঁও থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি তদন্ত করেন।  

প্রতিবেশী হাসান জামিল অপু বলেন, খোঁজ পেয়ে আমরা দ্রুত সবাইকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেছি।

গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ ফারুক আহম্মেদ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠিয়েছি। আক্রান্ত পরিবরের লোকজনের সাথে কথা বলে লিখিত অভিযোগ ও তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা