kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

লক্ষ্মীপুরে সৌদি প্রবাসীকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৩১ জুলাই, ২০২২ ০২:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরে সৌদি প্রবাসীকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

লক্ষ্মীপুরে দোকানে বসে আড্ডা দেওয়ার সময় রুবেল হোসেন জাহিদ (৩২) নামে এক সৌদি প্রবাসীকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে।  

শনিবার (৩০ জুলাই) রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাশিপুর গ্রামে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা এ ঘটনা ঘটায়। এসময় প্রবাসীর ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ছিনতাই করে নিয়ে যায় তারা।  

রুবেল বশিকপুর গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে ও সৌদি প্রবাসী।

বিজ্ঞাপন

তাকে প্রথমে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এক মাস পর রুবেলের ফের সৌদি যাওয়ার কথা রয়েছে বলে জানায় পরিবার।

রুবেলের মা জাহানারা ও বোন রিয়া আক্তার জানায়, রমজানের আগে রুবেল সৌদি থেকে বাড়িতে আসে। এরপর তিনি চলাচলের জন্য ১ লাখ ৯৩ হাজার টাকা দিয়ে একটি মোটরসাইকেল কিনেন। ওই মোটরসাইকেলের দিকেই সন্ত্রাসীদের নজর পড়েছে। ঘটনার সময় বাড়ির সামনে কুসুম আলীর দোকানে বসে রুবেল চা পান করছিল। এসময় মুখোশ পরিহিত ৮-১০ জনের একদল সন্ত্রাসী এসে রুবেলের বাম পায়ে গুলি করে। একপর্যায়ে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে তার দুই হাতের আঙুলসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম হয়। পরে সন্ত্রাসীরা তার মোটরসাইকেলটি নিয়ে পালিয়ে যায়। তাৎক্ষণিক স্থানীয়রা রুবেলকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হাসপাতালে আহত রুবেল হোসেন জাহিদ সাংবাদিকদের বলেন, আমার সঙ্গে কারো শত্রুতা নেই। হামলাকারীরা মুখোশ পরিহিত ছিল। তারা আমাকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আরমান হোসেন বলেন, জাহেদের বাম পায়ের রানে অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করা হয়েছে। এতে অস্ত্রের স্পিন্টারে তার ডান পা সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম হয়। এছাড়া তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অস্ত্রের ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, আমি ঘটনাস্থলে এসেছি। অজ্ঞাত কয়েকজন রুবেলের ওপর হামলা করেছে। পরিবার ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে দ্রুত তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।



সাতদিনের সেরা