kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

আওয়ামী লীগ নেতার মেয়ের বিয়েতে ব্যতিক্রমী আয়োজন!

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৯ জুলাই, ২০২২ ১৭:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আওয়ামী লীগ নেতার মেয়ের বিয়েতে ব্যতিক্রমী আয়োজন!

বাবার স্বপ্ন পূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে এলেন বর। আবার বিয়ে শেষে স্ত্রীকে নিয়ে হেলিকপ্টারে চড়ে চলে গেলেন। এই হেলিকপ্টারের উঠানামা দেখতে স্থানীয় জনগণের ছিল ব্যাপক ভিড়। বরযাত্রী এবং আত্মীয়-স্বজনের চেয়ে হেলিকপ্টার দেখা উৎসুক জনগণই ছিল বেশি।

বিজ্ঞাপন

বিয়েতে আত্মীয়-স্বজন ও দলীয় নেতাকর্মী মিলে প্রায় তিন হাজার লোককে দাওয়াত দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কারো কাছ থেকেই নেওয়া হয়নি কোনো উপহার।

আজ শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলা হেলিপ্যাডে এসে অবতরণ করে একটি হেলিকপ্টার। হেলিকপ্টারে বর সেজে এসেছিলেন পার্শ্ববর্তী মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরের হায়দার মিয়ার ছেলে কানাডাপ্রবাসী অপু সুলতান।  

অপু সুলতানের সঙ্গে বিয়ে হয় কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুমন হোসেন বাচ্চুর মেয়ে জিনিয়া হোসেন জেরিনের।  

আওয়ামী লীগ নেতা সুমন হোসেন বাচ্চু এই বিয়েতে এক ব্যতিক্রমী আয়োজন করেন। বিয়েতে আত্মীয়-স্বজন ও দলীয় নেতাকর্মী মিলে প্রায় তিন হাজার লোককে দাওয়াত দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কারো কাছ থেকেই নেওয়া হয়নি কোনো উপহার। বিয়ের দাওয়াতের সময়ই প্রত্যেক অতিথিকে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছিলেন সুমন হোসেন বাচ্চু।  

সুমন হোসেন বাচ্চুর ভাই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বাবলু হাজরা বলেন, জেরিন আমাদের পরিবারের খুব আদরের মেয়ে। আমাদের পূর্ব থেকেই ইচ্ছা ছিল খুব ধুমধাম করে জেরিনের বিয়ের অনুষ্ঠান করার। আল্লাহ তায়ালা আমাদের সেই ইচ্ছা পূরণ করেছেন। আমরা আমাদের কন্যার জন্য সব অতিথির কাছ থেকে উপহার হিসেবে শুধু দোয়া চেয়েছি। সবার দোয়ায় আল্লাহ যেন আমাদের মেয়ে ও জামাইকে সুখে-শান্তিতে রাখেন।

বর অপু সুলতান বলেন, আমার পিতার স্বপ্ন ছিল আমি যেন হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে যাই। আল্লাহ তায়ালা আমার বাবার স্বপ্ন পূরণ করেছেন। আপনারা সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।



সাতদিনের সেরা