kalerkantho

বুধবার । ১৭ আগস্ট ২০২২ । ২ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৮ মহররম ১৪৪৪

মায়ের লাশের পাশে কাঁদছিল শিশু, বাবা পলাতক!

মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২২ জুলাই, ২০২২ ১৮:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মায়ের লাশের পাশে কাঁদছিল শিশু, বাবা পলাতক!

তালা বদ্ধ ঘরে শিশু কাঁদছে, পাশে মা, বেঁচে নেই। ঘরে তালা দিয়ে বাবা পলাতক। এমন ঘটনা ঘটেছে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলা সদরে। ঐ শিশুর মা শিউলি বেগমের রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী আল আমিন পলাতক রয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা সদরের ভূমি অফিসের পাশে কাচারীপাড়া বাঁধের ধারে রবিউল আলম লিটনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।  

স্থানীয় সূত্রে জানায়, সাপাহার গোলচত্তর এলাকার বকুলের পুত্র আল আমিন সপ্তাহ খানেক আগে আড়াই বছরের এক কন্যা সন্তান হালিমা আক্তার আঁখি ও স্ত্রী শিউলি আক্তারকে (৩০) নিয়ে লিটনের বাড়িতে ভাড়া ওঠেন। বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার দিকে শিশুটির কান্না শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গেলে ঘরের দরজা তালাবদ্ধ দেখতে পায়।  

এ সময় তাদের সন্দেহ হলে তারা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ এসে দরজার তালা ভেঙে খাটের উপর বিবস্ত্র অবস্থায় শিউলি আক্তারের লাশ দেখতে পায়। সে সময় পাশে বসে শিশুটি কাঁদছিল। আল আমিন মহাদেবপুর বাজারে বিভিন্ন টেইলার্সে দর্জির কাজ করত। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জের ধরে দুপুরের কোনো এক সময় আল আমিন তার স্ত্রী শিউলিকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার পর ঘর তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায়।  

মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দিন মহামুদ জানান, খবর পেয়ে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটি হত্যাকাণ্ড বলে মনে হচ্ছে। লাশের ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। এ বিষয়ে নিহতের বাবা বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।



সাতদিনের সেরা