kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

১০ বছর পর মেঘনা উপজেলা আ. লীগের সম্মেলন, প্রার্থীদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

দাউদকান্দি(কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

২২ জুলাই, ২০২২ ১২:৪৩ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



১০ বছর পর মেঘনা উপজেলা আ. লীগের সম্মেলন, প্রার্থীদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

দীর্ঘ ১০ বছর পর আগামীকাল শনিবার (২৩ জুলাই) কুমিল্লার মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সম্মেলনকে ঘিরে উপজেলার নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সভাপতি ও সাধারণ প্রার্থীদের মধ্যে কাউন্সিলর করা নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ পাওয়া গেছে।  

সভাপতি পদে যারা প্রার্থী হয়েছেন তারা হলেন বর্তমান সভাপতি মো. শফিকুল আলম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম তাজ।

বিজ্ঞাপন

আর সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীরা হলেন বর্তমান দায়িত্বরত উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ মিয়া রতন সিকদার, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাসির উদ্দিন শিশির।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, সর্বশেষ ২০১২ সালে মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়। এ সম্মেলনে মো. শফিকুল আলম সভাপতি ও সাইফুল্লাহ মিয়া রতন সিকদার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়ায় তারাই দায়িত্ব পালন করছেন।

এরই মধ্যে পদপ্রত্যাশী নেতারা সম্মেলন সফল করার আহ্বান জানিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকাসহ সম্মেলনের স্থান উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে ফেস্টুন, ব্যানার, তোরণ ও বিলবোর্ড লাগিয়েছেন। ফেসবুকেও চলছে প্রচার-প্রচারণা। মেঘনা উপজেলা আওয়ামী পরিবারসহ বাজার মোড়ের চা দোকান সর্বত্রই সম্মেলনকে ঘিরে আলোচনা চলছে। তবে সম্মেলনে কাউন্সিলর নির্বাচন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন কেউ কেউ।

এনিয়ে সভাপতিপ্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ইউনিয়নগুলোতে আওয়ামী লীগের কমিটি নয়, ব্যাক্তি লীগের কমিটি করা  হয়েছে। তৃণমূলের ত্যাগী ও বঞ্চিতদের পরিবর্তে ব্যাক্তিকেন্দ্রিক নেতাদের কাউন্সিলর করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি। বিষয়গুলো জেলা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগকে অবগত করা হয়েছে। তবুও আমি সম্মেলনে প্রার্থী হয়েছি।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী জেলা আ. লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন শিশির বলেন, একটি ইউনিয়নে আ. লীগের অনেক লোক আছে, এরমধ্যে বাছাই করে ৩১জনকে কাউন্সিলর করা হয়েছে। হয়তো কেউ বাদ পড়তে পারে। আর এটা বর্তমান কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদক তালিকা তৈরি করেছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ মিয়া রতন সিকদার বলেন, মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের সব ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করা হয়েছে। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৮টি ইউনিয়নের ৩১জন করে, উপজেলা কমিটির ৬১জন এবং আরো ১৫জন (কোয়াব) মিলে মোট ৩২৪ জন কাউন্সিলরের তালিকা কেন্দ্রে এবং জেলায় জমা দেওয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ বড় পরিবার। এ পরিবারের সদস্য সংখ্যা অনেক বেশি, তাই অভিযোগ-আপত্তি থাকতেই পারে। কিন্তু গঠনতন্ত্রের বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ আমাদের নেই।

আগামীকালের সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সম্মানিত অতিথি কুমিল্লা-১ আসনের সাংসদ মেজর জেনারেল(অব) সুবিদ আলী ভূইয়া, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. আব্দুস সবুর, ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত থাকবেন বলে দলীয় সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদের জন্য একাধিক নেতা বিভিন্ন মহলে তদবির করছেন বলে জানা গেছে।

মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বর্তমানে সব দলের লোকই আওয়ামী লীগে ভিড় জমাচ্ছে। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের কমিটিতে স্থান দেয়ার দাবি জানান তারা।



সাতদিনের সেরা