kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

নাটোরে ছিনতাইচক্রের ৫ সদস্য আটক

৪টি মোটরসাইকেল ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে

নাটোর প্রতিনিধি    

১ জুলাই, ২০২২ ১৩:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাটোরে ছিনতাইচক্রের ৫ সদস্য আটক

নাটোরে তিন উপজেলায় সক্রিয় ছিনতাইচক্রের পাঁচজন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ও চারটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দুজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।  

আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে নাটোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে নাটোরের পুলিশ সুপার এবং এডিশনাল ডিআইজি লিটন কুমার সাহা এসব তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

 

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, সিংড়া, গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রামে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নগদ টাকা এবং একটি মোটরসাইকেল ছিনতাই হয়। এসব ঘটনায় তিনটি থানায় ভুক্তভোগীরা মামলা করেন। এরপর পুলিশ তদন্তে নামে। তদন্তের এক পর্যায়ে হত্যা ও ছিনতাই মামলার আসামি সিংড়া উপজেলার নাছিয়ারকান্দি গ্রামের মৃত পচা সরদারের ছেলে আব্দুল করিমকে (৪৭) গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদকালে সে এসব ছিনতাইকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে এবং ছিনতাই চক্রের সদস্যদের বিষয়ে তথ্য প্রদান করে।  

পুলিশ সুপার জানান, করিমের স্বীকাারোক্তি অনুযায়ী তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে দেখা যায়,  যেখানে যেখানে ছিনতাই হয়েছে সেখানে তাদের মোবাইল লোকেশন মিলছে। পরে গত ২৯ জুলাই পুলিশ অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- সিংড়া উপজেলার কালিনগর গ্রামের রুপচাদ আলীর ছেলে সোহেল রানা (২২), শিবপুর গ্রামের আলাল মৃধার ছেলে রাজিম ওরফে রাজিব ওরফে রাজু (২৮), কলম লক্ষীপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে ইয়াকুব আলী (২৮) এবং পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার নওয়া গ্রামের হাচেন আলীর ছেলে রইচ উদ্দিন ওরফে রাজ ওরফে মামুন (৫২)।  

এসময় পুলিশ ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত ২টি মোটরসাইকেলসহ ৪টি মোটরসাইকেল উদ্ধার এবং নগদ ছিনতাইকৃত ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করে। তারা পুলিশের কাছে ছিনতাই করার কথা স্বীকার করেছে। এদের মধ্যে গ্রেপ্তারকৃত সোহলে রানা এবং রাজমি ওরফে রাজবি ওরফে রাজু গতকাল  বৃহস্পতিবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।  



সাতদিনের সেরা