kalerkantho

মঙ্গলবার। ৯ আগস্ট ২০২২ । ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১০ মহররম ১৪৪৪

পদ্মা সেতুতে দোয়া করলেন সাইফুদ্দীন মাইজভাণ্ডারী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ জুন, ২০২২ ১৯:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পদ্মা সেতুতে দোয়া করলেন সাইফুদ্দীন মাইজভাণ্ডারী

মাইজভাণ্ডার দরবার শরিফের ইমাম, হজরত শাহসুফি সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী (মা.জি.আ.) আজ রবিবার পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে মোনাজাত করেন। ছবি : সংগৃহীত

পদ্মা সেতুর ওপর দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু, শান্তি-সমৃদ্ধি এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করেছেন মাইজভাণ্ডার দরবার শরিফের ইমাম, হজরত শাহসুফি সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী (মা.জি.আ.)। আজ রবিবার বিকেলে ফরিদপুরে মাহফিলে যোগদানের জন্য পদ্মা সেতু অতিক্রমের সময় তিনি গাড়ি থেকে নেমে দোয়া করেন।

এ সময় সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী বলেন, পদ্মার বুকে নিজস্ব অর্থায়নে সেতু! যা ছিল কল্পনাপ্রসূত, চ্যালেঞ্জিং ও অসম্ভব। তা-ই সম্ভব করে দেখিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

এক বিবৃতিতে সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী মাইজভাণ্ডারী বলেন, দিন দুয়েক আগেও পদ্মার এপাড় ওপাড়ে যাতায়াত করতে মানুষের অনেক ভোগান্তিতে পড়তে হতো। প্রায়শই সংবাদ মাধ্যমে খবর হতো পদ্মায় নৌকা, লঞ্চ ডুবিতে অনেক লোকের সলিল সমাধি ঘটেছে। কিংবা ফেরির কারণে যানজটে আটকে থাকা অ্যাম্বুলেন্সে রোগীর মৃত্যু, মাছ, সবজি পঁচে, কৃষক ও ব্যবসায়ীর ব্যাপক ক্ষতি।

তিনি বলেন, আমাদের পূর্ব পুরুষদের দ্বীনি দাওয়াতের জন্য পদ্মার ওপাড়ে যেতে অনেক কষ্ট ও ভোগান্তি সহ্য করতে হয়েছিল। আমাদের সময়ে এসে আজ থেকে সময়ের অপচয় ও ভোগান্তি থেকে মুক্তি মিলল। তার জন্য মহান আল্লাহর দরবারে শোকরিয়া আদায় করছি। পদ্মা সেতুর কারণে এই অঞ্চলের মানুষের সঙ্গে সারা দেশের মানুষের ব্যবসায়িক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় ও আত্মিক মেলবন্ধন সহজতর হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী আরো বলেন, আধুনিক স্থাপত্য শৈলীতে নির্মিত পদ্মা সেতুকে নিয়ে সমগ্র জাতির ন্যায় আমিও অহংকার বোধ করছি। পদ্মা সেতু আমাদের অহংকার হলেও এই সেতু নির্মাণ খুব একটা সহজ ছিল না। বিশ্ব ব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ এনে পদ্মা সেতু থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল। সেই সময় এ দেশের নাগরিক হিসেবে আমিও লজ্জিত হয়েছিলাম। পরে প্রমাণ হলো পদ্মা সেতু নির্মাণে কোনো দুর্নীতি হয়নি। এটা ছিল ষড়যন্ত্র। বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করবেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণায় আশান্বিত হলেও শংকিত ছিলাম। তিনি পারবেন তো? হ্যাঁ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব ষড়যন্ত্র ও প্রতিকুল পরিস্থিতি মোকাবেলা করে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়েছেন।

এই জন্য সাইয়্যিদ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।



সাতদিনের সেরা