kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

ধর্ষণ মামলার ১৫ বছর পর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রংপুর অফিস    

২৬ জুন, ২০২২ ১৯:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণ মামলার ১৫ বছর পর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রংপুরে ধর্ষণের অভিযোগে মামলায় ১৫ বছর পর তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় দুজন আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে মামলার প্রধান আসামি বাবু মিয়া পলাতক।

আজ রবিবার বিকেলে রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত-১ এর বিচারক মোস্তফা কামাল এ রায় ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

এ সময় বাদী পক্ষের লোকজন উপস্থিত ছিলেন আদালতে।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- রংপুর মহানগরীর এরশাদনগরের আব্দুল জলিলের ছেলে আসাদুল ইসলাম, আউয়াল মিয়ার ছেলে রঞ্জু মিয়া ও নগরীর লালবাগ কেডিসি রোড এলাকার আব্দুস ছাত্তারের ছেলে পলাতক বাবু মিয়া।

আদালত ও মামলার সূত্রে জানা গেছে, ২০০৭ সালের ২৬ মে রংপুর নগরীর তাজহাট বক্ষব্যাধি হাসপাতাল-সংলগ্ন বস্তি থেকে এক নারী রিকশা যোগে করে মডার্ন মোড় এলাকার দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় আসামি বাবু মিয়া ও তার সহযোগীরা মিলে জোর করে রিকশার গতিরোধ করে ওই নারীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে বাবু মিয়াকে প্রধান আসামি করে তিনজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

মামলার তৎকালীন তদন্ত কর্মকর্তা আজিজুল ইসলাম আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এ মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালতের বিচারক তিনজনকে যবজ্জীবন কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেন।

ধর্ষণ মামলার রায় ঘোষণার বিষয়টি নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রফিক হাসনাইন জানান, সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আদালত তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। দীর্ঘ ১৫ বছর পর রায় হলেও এতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ধর্ষণের শিকার ওই নারী। তবে আসামিপক্ষের আইনজীবী ও তাদের পরিবারের লোকজন জানান এ মামলার বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন করবেন তারা।



সাতদিনের সেরা