kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

সালিসে বরকে মারধর করে ১০ লাখ টাকার কাবিন

বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১৯ জুন, ২০২২ ১০:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সালিসে বরকে মারধর করে ১০ লাখ টাকার কাবিন

বরগুনার বেতাগীর মোকামিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালিস বৈঠকে ছেলেপক্ষকে আটকে মারধর করে ১০ লাখ টাকা বকেয়া কাবিন লিখে নিয়েছে। এতে ভুক্তভোগীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা গেছে, বেতাগী উপজেলার মোকামিয়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাইয়ালঘাটা গ্রামের হাফেজ মো. ইব্রাহিম মৃধার (৩৫) সঙ্গে বুড়ামজুমদার ইউনিয়নের পশ্চিম কাউনিয়া গ্রামের ফাতেমা আক্তারের (২৪) বিয়ে হয় চার বছর আগে। তাদের দেড় বছরের এক কন্যাসন্তান রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত ৬ জুন বরগুনা জজ আদালতের মাধ্যমে ফাতেমাকে তালাক দেন ইব্রাহিম। এ নিয়ে গত শুক্রবার সকালে স্থানীয় মোকামিয়া ইউনিয়ন পরিষদে সালিস বৈঠক হয়। এতে মোকামিয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী জালাল আহমেদ, ইউপি সদস্য শাহিন ও ইউপি সদস্য টিপু খলিফা লোকজন নিয়ে ইব্রাহিমকে মারধর করেন। এ সময় জোরপূর্বক কাবিনে ১০ লাখ টাকা লিখে ইব্রাহিমের স্বাক্ষর রাখা হয়। স্বাক্ষর দিতে অনীহা প্রকাশ করলে ইব্রাহিমের বড় ভাই শাহজাহান মৃধা, বোনের স্বামী লিটন হাওলাদার ও ভাবি শারমিন আক্তারকে মারধর করা হয়।

ইব্রাহিম বলেন, ‘আমাকে জোর করে কাবিননামায় স্বাক্ষর নিয়েছে, অথচ বিয়ে হয়েছে চার বছর আগে। মারধরের এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে গেলে তা নেয়নি। ’

এ বিষয় মোকামিয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী জালাল আহমেদ বলেন, ‘অনিয়ম কিছুই করা হয়নি, যা কিছু করা হয়েছে তা আইনের আলোকে করা হয়েছে। ’

বেতাগী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, ‘আইন অনুযায়ী ঘটনার বিবরণসহ থানায় মামলা দায়ের করতে হবে। মামলা হলে আইনগত সহায়তা করা হবে। ’



সাতদিনের সেরা