kalerkantho

বুধবার । ১৭ আগস্ট ২০২২ । ২ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৮ মহররম ১৪৪৪

চুয়েটে হলুদ ‘হেলমেট বাহিনী’, ওরা কারা?

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ জুন, ২০২২ ১৪:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুয়েটে হলুদ ‘হেলমেট বাহিনী’, ওরা কারা?

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, মারামারি, আহত, দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়াসহ নানা ঘটনার প্রেক্ষিতে উত্তপ্ত চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়টির ভেতরে হলুদ হেলমেট পরে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দলকে গোলচত্বরে অবস্থান করতে দেখা গেছে।

ছাত্রলীগের সংঘর্ষের জের ধরে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মঙ্গলবার ভোর ৫টা থেকেই সশস্ত্র অবস্থায় হলুদ হেলমেট পরে ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দলকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বরে অবস্থান করতে দেখা যায়। তারা সকাল ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চট্টগ্রাম শহরগামী শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ক্যাম্পাসে আনার উদ্দেশে রওনা দেওয়া সকল বাস আটকে তা পুনরায় গ্যারেজে ফেরত পাঠায়।

বিজ্ঞাপন

এরপর তারা হাতে রামদা ও লাঠিসোঁটা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বর এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, স্বাধীনতা চত্বরের আশপাশে কাউকে দেখলেই তার দিকে তেড়ে যাচ্ছিল ওই দলটি। এ কারণে সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২টি বিভাগের কোনো শিক্ষার্থী ক্লাসে যেতে পারেননি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. রেজাউল করিম এই দলটির পরিচয় নিশ্চিত করতে না পারলেও তিনি বলেন, ‘প্রতিদিনের মতো শ্রেণি কার্যক্রম শুরু করতে চট্টগ্রাম শহর থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মচারীদের আনতে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শহরের উদ্দেশে সাতটি বাস রওনা দেয়। কিন্তু হলুদ হেলমেট পরা একটি দল স্বাধীনতা চত্বরে বাসগুলোকে আটকে দেয়। এরা কারা আমার জানা ছিল না। তবে এরা ড. কুদরত-ই-খুদা হলের দিক থেকে এসেছে বলে আমি জানতে পেরেছিলাম। ’

এর আগে গত শনিবার শহরে বাস থামানোকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের দুই দল নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষ জড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজন সাধারণ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। ওই দুই দল চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন ও শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।



সাতদিনের সেরা