kalerkantho

রবিবার । ২৬ জুন ২০২২ । ১২ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

স্বতন্ত্র নারী প্রার্থীর ওপর নৌকা প্রার্থীর হামলা, প্রতিবাদ

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০২২ ২১:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বতন্ত্র নারী প্রার্থীর ওপর নৌকা প্রার্থীর হামলা, প্রতিবাদ

বরগুনার তালতলী উপজেলার নিশানবাড়ীয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুদা আক্তারের ওপর নৌকা সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে সহাস্রাধিক জনগণ ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা করে। অন্যদিকে মানববন্ধনকে অবৈধ দাবি করে বিকেল ৩টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসে সংবাদ সম্মেলন করেন নৌকা মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বাচ্চু মিয়া।

বিজ্ঞাপন

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মাসুদা আক্তারকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর হুমকি দিচ্ছেন নৌকা প্রার্থী বাচ্চু মিয়া ও তার কর্মী-সমর্থকরা। ২৫ মে বিকেলে অংকুজানপাড়া এলাকায় মাসুদা তার নিকটাত্মীয় ও ভোটারদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে পথে বাচ্চুর সমর্থকরা লাঠিসোঁটা নিয়ে তাদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে প্রার্থীসহ তার চার সমর্থক আহত হন।

তারা আরো বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবেই। তাই বলে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে একজন নারী চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যাচেষ্টা চালাবেন, আমরা সাধারণ জনগণ কোনো অবস্থাতেই তা মেনে নিতে পারি না। এ ঘটনার সাথে জড়িত দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী দুলাল ফরাজী, রাখাইন নেতা নিও, মজিবর ফরাজী প্রমুখ।

এদিকে মানববন্ধনের পরপরই পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেন নৌকা মার্কার প্রার্থী বাচ্চু মিয়া। তিনি বলেন, 'স্বতন্ত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুদা আক্তার ও তার স্বামী দুলাল ফরাজী দুজনই স্বতন্ত্র প্রার্থী। নৌকার জনপ্রিয়তা দেখে তারা প্রার্থী হয়েছেন। এরপর আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিচ্ছেন। তিনি যে ঘটনা নিয়ে মানববন্ধন করেছেন সে রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। '

সংবাদ সম্মেলনের উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কামরুল আহসান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ হাওলাদারসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, 'খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্বতন্ত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুদা আক্তার। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। '



সাতদিনের সেরা